রাতেই রাজ্যে অমিত শাহ, কাল কর্মসূচি মেদিনীপুরে, রবিবার যাবেন শান্তিনিকেতন

বিধানসভা ভোটের আগে ১৯-২০ ডিসেম্বর অমিত শাহের বঙ্গ সফরে নজর রাজনৈতিক মহলের। শুভেন্দু অধিকারী-সহ তৃণমূল ও বাম শিবিরের একাধিক নেতা বিজেপির পতাকা তুলে নেবেন বলে শোনা যাচ্ছে। সভা ছাড়াও আগামী দু’দিন রাজ্যের কোথায় কোথায় যাবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী? কী কী কর্মসূচি?

রাজনৈতিক মহলের মতে শুভেন্দুর গড়ে তাঁর হাতে বিজেপির পতাকা তুলে দেওয়ার জন্যই জনসভার আয়োজন গেরুয়া শিবিরের। জানা যাচ্ছে, শনিবার বেলা ১২টা নাগাদ হেলিকপ্টারে মেদিনীপুর যাওয়ার কথা অমিত শাহের। বিজেপি সূত্রের খবর, সেখান থেকে হবিবপুরে স্বাধীনতা সংগ্রামী ক্ষুদিরাম বসুর মাসির বাড়িতে যাবেন শাহ। মাল্যদান কর্মসূচি ছাড়াও ক্ষুদিরাম বসুর বংশধরদের সঙ্গেও কথা বলবেন। সেখানে অমিত শাহকে সংবর্ধনা জানানোর আয়োজন হচ্ছে। এরপরের গন্তব্য সিদ্ধেশ্বরী কালী মন্দির। মন্দিরে পূজোর ব্যবস্থা হয়েছে। সেখান থেকে অমিত শাহ চলে যাবেন কর্ণগড় মা মহামায়ার মন্দিরে। সেখানে পুজো দেওয়ার পর সনাতন সিংহের বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজন। কর্ণগড় থেকে সোজা মেদিনীপুর কলেজ মাঠ। সেখানে সভা করবেন অমিত। 

রবিবার অমিত শাহের বোলপুর সফর। ২০ ডিসেম্বর সকাল ১১ টা নাগাদ তাঁর বিশ্বভারতী হেলিপ্যাডে নামার কথা। সেখান থেকে গাড়িতে বিশ্বভারতী চত্বরে ঘণ্টা দুই কাটানোর কথা। বিশ্বভারতী সূত্রে খবর, রবীন্দ্রভবন ও বাংলাদেশ ভবন পরিদর্শন করবেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী। বিশ্বভারতী চত্বর থেকে দুপুর ১ টা নাগাদ বোলপুর পারুলডাঙা যাওয়ার কথা অমিত শাহের। সেখানে এক বাউল শিল্পীর বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজনের পরিকল্পনা রয়েছে। দুপুর ২টো নাগাদ বোলপুর ডাকবাংলো মাঠে পৌঁছে যাওয়ার কথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর। দু’ ঘণ্টা ডাকবাংলো মাঠ থেকে বোলপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত রোড শো করার কথা অমিত শাহের। তারপর একটি হোটেলে সাংবাদিক সম্মেলন করে এ বারের মতো রাজ্য সফর শেষ করবেন তিনি। প্রথমে সড়কপথে অণ্ডালের কাজী নজরুল ইসলাম বিমানবন্দরে পৌঁছবেন এবং সেখান থেকে দিল্লী ফিরবেন অমিত শাহ।

Comments
Loading...