আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়ার হুমকি কাশ্মীরের ১২০০ পড়ুয়ার

আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রের কাশ্মীরে এনকাউন্টারে মৃত্যু এবং তাঁর স্মরণসভাকে কেন্দ্র করে ফের বিতর্ক। তিন ছাত্রকে সাসপেন্ড করল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এদিকে, সহপাঠী তিন পড়ূয়ার বিরুদ্ধে দেশ বিরোধী স্লোগান দেওয়া এবং মৃত হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি মানান বশির ওয়ানি স্মরণে শোক সভা আয়োজন করার যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তা প্রত্যাহার করা না হলে আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে চলে যাওয়ার হুমকি দিলেন প্রায় ১২০০ পড়ুয়ার তরফ থেকে।
জানা গেছে, সাজ্জাদ রাঠার নামে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের প্রাক্তন সহ সভাপতি বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ভাইস চ্যান্সেলরকে শনিবার রাতে চিঠি লিখে জানিয়েছেন, অবিলম্বে যদি ওই তিন পড়ুয়ার বিরুদ্ধে আনা চার্জ প্রত্যাহার করা না হয়, তাহলে ১৭ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে কাশ্মীর উপত্যাকায় নিজেদের বাড়ি ফিরে যাবেন ওই পড়ুয়ারা। চিঠিতে সাজ্জাদ জানিয়েছেন, মানান বশির ওয়ানির স্মরণে ১২ অক্টোবর যে বিশেষ স্মরণসভার আয়োজন ও সেখানে দেশ বিরোধী স্লোগান দেওয়ার কথা বলা হচ্ছে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অনুমতি না মেলায় সেই স্মরণসভা করাই হয়নি। এর থেকেই পরিষ্কার কেবলমাত্র প্রতিহিংসা পরায়ণতার বশবর্তী হয়ে হেনস্থা করার জন্য এই অভিযোগ আনা হয়েছে।
তবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তরফে বলা হয়েছে, অযথা কোনও পড়ুয়াকেই হেনস্থা করা হচ্ছে না, কোনও নির্দোষ ছাত্র শাস্তি পাবে না। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দিয়েছে, কোনও দেশ বিরোধী স্লোগান বা জঙ্গি কার্যকলাপ সমর্থন করা হবে না।
জানা গেছে, মৃত জঙ্গি মানান বশির ওয়ানি আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের জিওলজি বিভাগের পিএইচডি স্টুডেন্ট ছিলেন। গত জানুয়ারি মাসে তিনি পড়া ছেড়ে জঙ্গি দলে নাম লেখান বলে অভিযোগ। সম্প্রতি নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে এক এনকাউন্টারে তাঁর মৃত্যু হয়। অভিযোগ, তাঁর মৃত্যুর পর বিশ্ববিদ্যালয়ে ওয়ানির সমর্থনে দেশ বিরোধী স্লোগান দেয় কিছু পড়ুয়া। এই অভিযোগে ওই তিন পড়ুয়ার বিরুদ্ধে কেস করা হয়েছে।
পুলিশ জানিয়েছে, তাদের কাছে ভিডিও রয়েছে যা থেকে প্রমাণিত হয় যে অভিযুক্তরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গনেই দেশ বিরোধী স্লোগান দিয়েছিল। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের একটি আভ্যন্তরীণ কমিটি গঠন করেছে। ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত পড়ুয়াদের সাসপেন্ড করা হয়েছে। বিজেপির তরফেও দাবি করা হয়েছে দোষীরা যাতে কোনওভাবেই ছাড়া না পায়।

Comments
Loading...