ফের রক্তাক্ত অসম, লাইন দিয়ে বসিয়ে খুন ৫ বাঙালিকে। এনআরসসি’র জন্য নয়তো? ট্যুইট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

ফের রক্তাক্ত অসম। অসমে ফের বাঙালি খুন। একসঙ্গে পাঁচ বাঙালিকে ডেকে নিয়ে গিয়ে লাইন দিয়ে বসিয়ে গুলি করে খুন করল জঙ্গিরা। সন্দেহের তির প্রাথমিকভাবে আলফা (স্বাধীন) গোষ্ঠীর দিকে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে অসমের তিনসুকিয়া জেলার ধলা এলাকায়। এলাকায় তৈরি হয়েছে তীব্র আতঙ্ক।
পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাত ৮ টা -সওয়া ৮ টা নাগাদ বেশ কিছু যুবক বাঙালি অধ্যুষিত এলাকা খেরবাড়ি গ্রামে হানা দেয়। তাঁদের প্রত্যেকেরই মুখ-চোখ ছিল কালো কাপড়ে ঢাকা। খেরবাড়ি গ্রামের একটি দোকানে সেই সময় কয়েকজন স্থানীয় মানুষ বসে গল্প করছিলেন। ওই যুবকেরা তাঁদের মধ্যে কয়েকজন বাঙালিকে বেছে ‘কথা আছে’ বলে ভূপেন হাজারিকা সেতুর কাছে নিয়ে যায়। স্থানীয় মানুষেরা ওই যুবকদের উদ্দেশ্য বুঝতেই পারেননি।
পুলিশ জানিয়েছে, সেতুর কাছে নিয়ে গিয়ে স্থানীয় মানুষদের লাইন দিয়ে বসায় দুষ্কৃতীরা। তারপর স্বয়ংক্রিয় রাইফেল বের করে এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় শ্যামলাল বিশ্বাস (৬০), অনন্ত বিশ্বাস (১৮), অবিনাশ বিশ্বাস (২৩), সুবল দাস (৬০) এবং ধনঞ্জয় নমশুদ্র (২৩)। দু’জন কোনওভাবে পালাতে পেরেছেন। ঘটনাস্থল থেকেই কিছু দূরেই পুলিশ চৌকি। কিন্তু পুলিশ পৌঁছানোর আগেই দুষ্কৃতীরা পালায়।
অসমে নাগরিকপঞ্জি চালু হওয়ার পরে বাঙালিদের বারবারই হুমকি দিয়েছে জঙ্গি গোষ্ঠী আলফা। এদিন রাতে ঘটনার পর বাংলার মুখ্যমন্ত্রী ট্যুইট করে বলেন, ‘এনআরসি নিয়ে সাম্প্রতিক ঘটনাবলীর জন্যই এই পাঁচজনের মৃত্যু হল না তো’? ইতিমধ্যেই অসমে বাঙালি খুনের বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে তৃণমূল। শুক্রবার বাংলাজুড়েই কালা দিবস পালন এবং ধিকার কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।

Comments
Loading...