Love Jihad: বিয়ের আগে হবু স্ত্রীকে ধর্ম, উপার্জন সহ একাধিক নথি জানানো বাধ্যতামূলক, নয়া নিয়ম আনছে অসম সরকার

রাজ্যের বিভিন্ন নিয়ম কানুন নিয়ে এর আগে একাধিকবার কড়া পদক্ষেপ নিয়েছেন অসমের মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। করোনার মাঝেই তিনি বেশ কয়েকবার লাভ জিহাদ নিয়েও কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। কিন্তু এবার বিয়ে নিয়ে আরও একধাপ কড়া পদক্ষেপ নিতে চলেছে অসম সরকার। বিয়ের আগেই পাত্রপক্ষকে ধর্ম, উপার্জন ও কাজ সম্পর্কে হবু স্ত্রীকে জানাতে হবে বলে জানিয়েছে সরকার পক্ষ।

অসমে এর আগে একাধিকবার লাভ জিহাদের মতো ঘটনার অভিযোগ এনেছে বিজেপি। তাই এবার আরও কঠোর ব্যবস্থা নিতে চলেছে বিজেপি সরকার। অসমের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানিয়েছেন, অসমে মহিলাদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা বজায় রাখার জন্যই এই নয়া আইন আনা হবে। আর এই আইনের মাধ্যমে মেয়েদের সাবধানতাও বজায় রাখা সম্ভব হবে। কিন্তু এই নয়া নিয়ম অসমের মানুষদের কী প্রতিক্রিয়া তা এখনও জানা সম্ভব হয়নি।

এই নয়া নিয়মের পাশাপাশি আরেক নতুন প্রকল্পের ঘোষণাও করা হয়েছে। অরুণোদয় প্রকল্প নামক এই বিশেষ প্রকল্পের সাহায্যে সমাজে একা থাকা মহিলাদের প্রতি মাসে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ৮৩০ টাকা করে দেবে অসম সরকার। এছাড়াও বিশেষভাবে সক্ষম মানুষরাও এবার থেকে এই বিশেষ প্রকল্পের সুবিধা পাবেন বলে জানিয়েছে সরকার।

বিয়ের আগে পাত্র পক্ষকে যাবতীয় নথি দেওয়া নিয়ে এদিন হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানান,  জীবিকা নির্বাহ করতে একজন পুরষ কী করেন, তার মাসিক উপার্জন কত, এসব তথ্য স্ত্রীর জানার অধিকার আছে। স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কোনও কিছুই গোপন করে রাখা উচিত নয়। লাভ জিহাদ এখন একটা বড়ো সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই লাভ জিহাদ রোখার পাশাপাশি অসমের মেয়েদের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত এবং নিরাপত্তা বজায় রাখার জন্যই এই নয়া নিয়ম।

Comments
Loading...