শহরে ফের ব্যাঙ্ক জালিয়াতি, যাদবপুরে ৩৫ জনের অ্যাকাউন্ট থেকে গায়েব ৭ লক্ষ, তদন্তে দিল্লি গেল কলকাতা পুলিশ

ফের শুরু হয়েছে এটিএম জালিয়াতি। যাদবপুর এলাকার দুটি বেসরকারি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে অন্তত ৭ লক্ষ টাকা খুইয়েছেন ৩৫ জন! টাকা তোলা হয়েছে দিল্লিতে। পুলিশ সূত্রে খবর, এ পর্যন্ত ৩৫ জন ব্যক্তি অভিযোগ করেছেন, তাঁদের অজান্তেই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে খোওয়া যাচ্ছে টাকা। কারও অ্যাকাউন্ট থেকে ১০ হাজার টাকা, কারও ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত তোলা হয়েছে। কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা এই ঘটনার তদন্তে নেমেছে।সোমবার ব্যাঙ্ক প্রতারণা শাখার গোয়েন্দারা যাদবপুর থানায় যান তদন্ত করতে। তবে মঙ্গলবার পর্যন্ত এর কোনও কিনারা করতে পারেনি পুলিশ।
প্রাথমিকভাবে পুলিশ মনে করেছিল, যাদবপুরের এটিএম-এ স্কিমার লাগানো ছিল। কিন্তু তদন্তে নেমে একটি এটিএম কাউন্টার থেকে কোনও স্কিমার ডিভাইসের সন্ধান পায়নি পুলিশ।

প্রসঙ্গত, এটিএমে স্কিমার লাগিয়ে অ্যাকাউন্ট নম্বর, এটিএম কার্ডের পিন নম্বর চুরি করে এর আগে একাধিক এটিএম জালিয়াতির ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু এবার তেমন কিছু পাওয়া যায়নি। প্রশ্ন উঠছে, তাহলে এবার কীভাবে টাকা তুলেছে দুষ্কৃতীরা? পুলিশের সন্দেহ, প্রচুর মানুষের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের যাবতীয় তথ্য চুরি হয়েছে। ওই দুই এটিএম কাউন্টারে সে সময় কোনও নিরাপত্তারক্ষীও ছিলেন না বলে দাবি পুলিশের এদিকে পুলিশের অভিযোগ, দিল্লির হাইজ খান এলাকার এটিএম থেকে এই টাকা তোলা হয়েছে। সেখানকার এটিএম কাউন্টারের সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষার জন্য ইতিমধ্যেই দিল্লি রওনা দিয়েছে কলকাতা পুলিশের একটি দল। এর সঙ্গে বড় কোনও জালিয়াতি চক্রের যোগ রয়েছে বলে পুলিশ মনে করছে।
প্রসঙ্গত, গত বছর কলকাতায় প্রায় ৫০ জন এটিএম প্রতারণার শিকার হয়েছিলেন। পুলিশে তদন্তে উঠে এসেছিল, এই জালিয়াতির মূলে রয়েছে একটি রোমানিয়ান গ্যাং।

Comments
Loading...