অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে রাম মন্দির, বিকল্প জমিতে মসজিদ। প্রায় ৫০০ বছর ধরে চলতে থাকা বিতর্কের অবসান। অযোধ্যা রায় ঘোষণা করল সুপ্রিম কোর্ট।

অযোধ্যার বিতর্কিত জমি মন্দির নির্মাণের জন্য রামলালাকে দিল সুপ্রিম কোর্ট। কীভাবে মন্দির নির্মাণ হবে তার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে ৩ মাসের মধ্যে ট্রাস্টি বোর্ড তৈরির নির্দেশ। মুসলিম পুক্ষের সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে বিতর্কিত জমির বাইরে অযোধ্যায় বিকল্প ৫ একর জমি দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে মসজিদ নির্মাণের জন্য।

রায়দানের সময় সাংবিধানিক বেঞ্চ নির্মোহী আখড়ার আবেদন খারিজ করে দেয়। যদিও নির্মোহী আখড়া এই মন্দির ট্রাস্টের অংশ হবে বলেও এদিন সুপ্রিম কোর্ট তার রায়ে জানিয়ে দিয়েছে।

প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বে ৫ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ সর্বসম্মতিতে এই রায় দিয়েছে।

টানা ৪০ দিন ধরে চলে অযোধ্যা শুনানি। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বে ৫ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ রায় ঘোষণা করে। বিচারপতিদের প্যানেলে ছিলেন বিচারপতি এস এ বোবদে, বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়, বিচারপতি অশোক ভূষণ, বিচারপতি এস আব্দুল নাজির।

১৮৫৫ সালে প্রথম শুরু হয় অযোধ্যা নিয়ে গোলমাল। তারপর যুগ যুগ ধরে চলেছে এই মামলা। পৃথিবীর সবচেয়ে হাই ভোল্টেজ মামলা হিসেবে চিহ্নিত করা হয় অযোধ্যা জমি বিবাদ মামলাকে। ফলে অযোধ্যা রায় ঘিরে দেশে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঘটনার কেন্দ্রবিন্দু অযোধ্যাকে মুড়ে ফেলা হয়েছে নিরাপত্তা বর্মে। সারা দেশে সংযম পালনের আবেদন করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরণের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Subscribe

You may also like