‘আমি আঙুল তুলে সাবধান করে দিচ্ছি, ধনখড়জির বিরুদ্ধে কোনও কথা বলার আগে দু’বার ভাববেন।’
রাজ্যপালের সমর্থনে এমন ভাষাতেই তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়।
বুধবার বিকেলে আসানসোলের ২ নম্বর জাতীয় সড়ক লাগোয়া কাল্লা মোড়ের জেলা বিজেপি কার্যালয়ে কৃষি আইনের স্বপক্ষে সভা ছিল। সেখান থেকেই আসানসোলের বিজেপি সাংসদ এই হুঁশিয়ারি দেন। কিন্তু কোন প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর এই মন্তব্য?
যোগী রাজ্যের হাথরস ধর্ষণ কাণ্ড নিয়ে সারা দেশে তোলপাড় শুরু হয়েছে। এই ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছিলেন রাজ্যের মুখ্য মন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। এই প্রেক্ষিতে দু’দিন আগে রাজ্যপাল ধনখড় একটি ট্যুইটে দাবি করেন, শুধু অগাস্ট মাসে বাংলায় ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে ২২৩ টি এবং অপহরণের ঘটনার সংখ্যা ৬৩৯। যদিও এই তথ্য নস্যাৎ করে দেয় রাজ্যের স্বরাষ্ট্র দফতর। এবং তৃণমূলের তরফেও কটাক্ষ করা হয়, ভুয়ো তথ্য দিচ্ছেন রাজ্যপাল। এই প্রসঙ্গেই বুধবার বাবুল সুপ্রিয় বলেন, ‘একজন বলিষ্ঠ মানুষ জগদীপ ধনখড়। তিনি একজন বিখ্যাত আইনজীবীও। এই রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান তিনি। তাই তিনি এমন কোনও শব্দ উচ্চারণ করেন না যা অসাংবিধানিক। কিন্তু সংবিধানে আছে রাজ্যপাল যদি কোনও প্রশ্ন করেন, তাহলে তার উত্তর মুখ্য মন্ত্রীকে দিতে হবে।’
এরপরই হুমকির সুরে তৃণমূলকে উদ্দেশ্য করে আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বলেন, ‘আমি আঙুল তুলে সাবধান করে দিচ্ছি, ধনখড়জির বিরুদ্ধে কোনও কথা বলার আগে দু’বার ভাববেন।”
গত বছরের সেপ্টেম্বরে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বাম পড়ুয়াদের হাতে ঘেরাও হয়েছিলেন বাবুল। তাঁকে উদ্ধার করতে সোজা ক্যাম্পাসে হাজির হয়েছিলেন রাজ্যপাল। সেদিন সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা অবরুদ্ধ থাকার পর রাজ্যপালের গাড়ি চেপে বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়েন তিনি। যদিও অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতিতে রাজ্যপালের বিশ্ববিদ্যালয় যাওয়া এবং মন্ত্রীকে ‘উদ্ধারের’ তীব্র সমালোচনা করেছিল রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

ED Notice on Narada Sting Operation