পুজোর মুখে দাম কমছে বিয়ারের, আগামী সপ্তাহ থেকেই দেশের সবচেয়ে সস্তায় বিয়ার মিলবে বাংলায়

পুজোর মুখে বিয়ার প্রেমীদের জন্য সুখবর। কমতে চলেছে বিয়ারের দাম। ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট বেভারেজেস কর্পোরেশন বা বেভকো সূত্রে জানা গিয়েছে, বিয়ারের দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর ফলে পুজোর মরসুমে হিম শীতল বিয়ারের বিক্রি লাফিয়ে বাড়বে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা। এর ফলে দেশে সবচেয়ে কম দামে বিয়ার পাওয়া যাবে বাংলায়।

লকডাউনে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল মদের দোকান। তারপর কেন্দ্রীয় নির্দেশিকায় দোকান খুললেও দাম বেড়ে যায় প্রায় ৩০ শতাংশ। বিয়ারের দামও কার্যত ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গিয়েছিল। এর জেরে বিক্রি যেমন কমছিল, তেমনই মার খাচ্ছিল বার-পাবের ব্যবসাও। এই পরিস্থিতিতে বিয়ারের দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নিল সরকার।

সূত্রের খবর, আগামী সপ্তাহ থেকেই নতুন দাম কার্যকর হয়ে যাবে। লাইট বিয়ারের দাম কমছে ২৫-৪০ শতাংশ। স্ট্রং বিয়ারের দাম কমছে ১৫-২০ শতাংশ।

সাধারণত মার্চ থেকে জুলাই মাসের শেষ পর্যন্ত বিয়ার বিক্রির সেরা সময় বলে ধরা হয়। বছরের ৭০ শতাংশ বিয়ার বিক্রি হয় এই সময়। কিন্তু এবার বেশিরভাগ সময়ই লকডাউন থাকায় ব্যবসা মার খেয়েছে। তাই পুজোর মরসুমে কীভাবে চাহিদা ফেরানো যায় তা নিয়ে ভাবনাচিন্তা চলছিল। শেষ পর্যন্ত দাম কমানোর সিদ্ধান্ত।

পূর্ব ভারতের হোটেল-রেস্টুরেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট সুদেশ পোদ্দার সরকারের এই সিদ্ধান্ত খুশি। তিনি জানাচ্ছেন, করোনা আবহে অতিরিক্ত ট্যাক্স বসায় এমনিতেই বিয়ারের বিক্রি কমেছিল। এবার দাম কমানোর সিদ্ধান্তে বাজারে চাহিদা ফিরবে। সরকারি এই সিদ্ধান্তে দ্বিমুখী লাভের আশা করছেন তিনি। বিয়ারের দাম কমলে পাব বা বারে বসে বিয়ার খাওয়ার প্রবণতা বাড়বে। বার বা পাবে বেশিক্ষণ থাকা মানেই খাবারের অর্ডার। ফলে একদিকে বিয়ার বিকোবে অন্যদিকে খাবারের বিক্রিও বাড়বে।

Comments
Loading...