গ্রেফতারের আগের দিন কুণালকে ফোন করে কী বলেন পামেলা? Whatsapp দেখিয়ে চাঞ্চল্যকর দাবি তৃণমূল মুখপাত্রর

বিজেপি নেত্রী কেন দলবল নিয়ে তৃণমূলের মুখপাত্রর সঙ্গে দেখা করতে চাইলেন?

বিজেপি নেত্রী পামেলা কাণ্ডে চাঞ্চল্যকর মোড়। গ্রেফতার হওয়ার ঠিক আগের দিন রাজ্য বিজেপি যুব মোর্চার সম্পাদক পামেলা গোস্বামী তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন!
এবিপি আনন্দের ঘন্টাখানেক সঙ্গে সুমন অনুষ্ঠানে চাঞ্চল্যকর দাবি করলেন কুণাল ঘোষ। নিজের ফোনে একটি হোয়াটস্যাপ চ্যাট দেখিয়ে কুণাল বলেন, পামেলা তাঁকে ম্যাসেজ করে দেখা করার জন্য সময় চেয়েছিলেন। কুণালের দাবি, পামেলা চ্যাটে তাঁকে বলেছেন তিনি এবং বিজেপির আরও কয়েকজন পদাধিকারী তাঁর সঙ্গে দেখা করতে চান। এবিপি আনন্দর ঘণ্টাখানেক সঙ্গে সুমন অনুষ্ঠানেই কুণাল ঘোষ পামেলা এবং তাঁর কথোপকথনের অংশটি পড়ে শোনান দর্শকদের।

পামেলা- দাদা নমস্কার। আপনার সঙ্গে কিছু কথা ছিল…
কুণাল- আপনি কে?
পামেলা- পামেলা গোস্বামী, রাজ্য বিজেপির যুব মোর্চার সম্পাদক
কুণাল- আচ্ছা
পামেলা- আমি এবং আরও কয়েকজন, সবাই আমার মত বিজেপির পদাধিকারী আপনার সঙ্গে দেখা করতে চাই।
কুণাল- আমি এখন কলকাতায় নেই, জেলায় রয়েছি দলের কাজে, আপনি আমায় ফোন করতে পারেন..
পামেলা- আপনাকে কখন ফোন করলে সুবিধা হবে?
কুণাল- আমি গাড়িতে রয়েছি, আপনি ফোন করতে পারেন।

[আরও পড়ুন- সত্যজিৎ রায় পুরস্কার, জাভরেকরের সঙ্গে বৈঠকে টলি তারকারা, উদ্দেশ্য নিয়ে ধোঁয়াশা]

এরপরেই পামেলা কুণালকে ফোন করেন, তাঁদের মধ্যে কিছু কথা হয়, কুণাল বলেন তিনি বিজেপি নেত্রী পামেলাকে চেনেন না, কলকাতায় ফিরে পামেলার সঙ্গে কথা বলবেন। ফোনে কুণালের সঙ্গে পামেলার কী কথা হয় তা কুণাল জানাননি।
সবমিলিয়ে তৃণমূল নেতার এই বিস্ফোরক দাবি ঘিরে পুনরায় মাদক মামলা নিয়ে চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। গ্রেফতারের আগের দিন দেখা করার জন্য পামেলা গোস্বামী কেন সময় চেয়েছিলেন তৃণমূল মুখপাত্রের কাছে? তাহলে কি যে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ পামেলা তুলছেন, তা আগেই টের পেয়ে গিয়েছিলেন? বিজেপি নেত্রী কেন দলবল নিয়ে তৃণমূলের মুখপাত্রর সঙ্গে দেখা করতে চাইবেন? সেটাই এখন সবচেয়ে বড়ো প্রশ্ন।

Comments
Loading...