দুর্ভেদ্য ভবানীপুরে হাল ছাড়তে নারাজ পদ্ম শিবির, হেস্টিংসে বৈঠক প্রিয়ঙ্কা, অর্জুনদের

ভবানীপুর নিয়ে স্ট্রাটেজি বৈঠকে বিজেপি নেতৃত্ব। শনিবার হেস্টিংসের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ অর্জুন সিংহ, রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ, জোতির্ময় মাহাতো এবং বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। 

সাংসদ তথা রাজ্য বিজেপির সহ সভাপতি অর্জুন সিংহকে ভবানীপুরের পর্যবেক্ষক করছে রাজ্য বিজেপি। এছাড়াও প্রতিটি ওয়ার্ডের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে একজন করে বিধায়ককে। সবমিলিয়ে বিনা যুদ্ধে তৃণমূলকে যে মাটি ছাড়তে নারাজ বিজেপি তা একপ্রকার স্পষ্ট। 

এদিন বৈঠক শেষে অর্জুন সিংহ এবং সৌমিত্র খাঁ দু’জনেই চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ শানিয়েছে ঘাসফুল শিবিরকে। প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালও শনিবার থেকে প্রচার শুরু করেছেন। 

অন্যদিকে ভবানীপুরে উপনির্বাচন ঘিরে ইতিমধ্যেই যুযুধান দুই পক্ষের তুঙ্গে উঠেছে বাকযুদ্ধ। বিজেপি প্রার্থী প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে প্রথমদিন পরিবহন মন্ত্রী দাবি করেন তিনি চেনেনই না তাঁকে। এখানেই না থেমে ফিরহাদ হাকিম শনিবার ফের কটাক্ষ করেন, খারাপ লাগছে এটা ভেবে যে,বিজেপি প্রার্থী ব্যাপক ব্যবধানে হারবেন। ওনাকে বলব উৎসাহ না হারাতে। 

পাল্টা জবাব এসেছে বিজেপির তরফেও। পরিবহনমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে দিলীপ ঘোষের কটাক্ষ, উনি আগে আমায়ও চিনতেন না, এখন বুঝে গিয়েছেন আমি কে। প্রিয়ঙ্কা টিবরেওয়ালকেও আশা করি তৃণমূল বুঝে গিয়েছে এতদিনে।   

Comments
Loading...