চায়না পাল এবং আশিস বিশ্বাসের হাত ধরে চিনে পাড়ি দিচ্ছে বাংলার মৃৎশিল্প ও টেরাকোটার কাজ

এবার চিনে পাড়ি দিতে চলেছে কুমোরটুলির মৃৎশিল্প এবং বাংলার টেরাকোটা। জুন মাসের ১৩ থেকে ২১ তারিখ পর্যন্ত চিনের কুনমিংয়ে অনুষ্ঠিত হবে ‘সাউথ ইস্ট এশিয়ান আর্ট উইক’। সেখানেই পশ্চিমবঙ্গ থেকে প্রতিনিধিত্ব করবেন কুমোরটুলির প্রতিমা শিল্পী চায়না পাল এবং উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ঠাকুরনগরের টেরাকোটা শিল্পী আশিস বিশ্বাস। তাঁরা চিনে থাকবেন মোট ১০ দিন। দক্ষিণ এশিয়ার নানা দেশের আমন্ত্রিত শিল্পীর শিল্পকর্মের প্রদর্শনীর পাশাপাশি কেনাবেচাও চলবে সেখানে। কুমোরটুলিতে এখন শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত এখানকার প্রথম মহিলা শিল্পী চায়না পাল। এক চালচিত্রের দুর্গা প্রতিমা বানানোতেই বিশেষ খ্যাতি চায়নার।

চায়না পাল

চায়না পাল জানালেন, তিনি চিনে নিয়ে যাচ্ছেন এক চালচিত্রের দুর্গা। যার বিশেষত্ব হল, পুরো দুর্গা প্রতিমাটিই ফোল্ডিং। সেটি কুনমিংয়ে প্রদর্শিত হবে। এছাড়াও তিনি নিয়ে যাচ্ছেন কালী মূর্তি এবং বিভিন্ন ধরনের ডাইস। কুনমিংয়ে চায়না দেখাবেন, কীভাবে একটি ডাইস ব্যবহার করে প্রথমে দুর্গা এবং পরে কালীর মুখ বানানো যায়। এছাড়াও সেখানে তিনি দেখাবেন প্রতিমার আঙুল নির্মানের কৌশল। বাংলার টেরাকোটা এবং মৃৎশিল্প নিয়ে আপাতত চিনের পথে পাড়ি দেবার অপেক্ষায় এই দুই শিল্পী।

আশিস বিশ্বাস

উত্তর ২৪ পরগনার আশিস বিশ্বাস অবশ্য চিনে পাড়ি জমাচ্ছেন তাঁর তৈরি টেরাকোটার শিল্প সম্ভার নিয়ে। thebengalstory.com কে আশিসবাবু জানালেন, বাংলার টেরাকোটা শিল্পকে আন্তর্জাতিক মঞ্চে তুলে ধরার এই সুযোগ পেয়ে তিনি অত্যন্ত গর্বিত। শুধু তাই নয়, চিনের একটি জাদুঘরেও এবার স্থান পেতে চলেছে বাংলার এই শিল্পীর টেরাকোটার কাজ। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে বারাক ওবামা, বিশ্বের তাবড় রাষ্ট্রপ্রধান এই জাদুঘরে পা রেখেছেন। চায়নার মতোই আশিসও সেখানে শেখাবেন টেরাকোটার শিল্পকলার খুঁটিনাটি কৌশল

Comments
Loading...