“ড্রাগ নিও না কেউ” বলা ভারতী এখন জেলে! হাসির রোল নেট দুনিয়ায়!

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু এর পর বলিউডের অন্দরমহল কেঁপে উঠেছে ড্রাগ কাণ্ডের চক্করে। দীপিকা থেকে সারা, কেউই মুক্তি পাননি সেই জেরার হাত থেকে। সম্প্রতি কমেডিয়ান ভারতী সিং এর তার স্বামী হর্ষ কে ড্রাগ কাণ্ডের চক্করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যায় NCB। ভারতীর বাড়ি থেকে নিষিদ্ধ মাদক উদ্ধার করার পরে এনসিবি (NCB) তাকে গ্রেফতার করে ৷ এরপর রাতভর জিজ্ঞাসাবাদ চলে তার স্বামী হর্ষের৷ রবিবার সকালে তাকেও ড্রাগ মামলায় গ্রেফতার করে নারকটিক্স ব্যুরো৷

ভারতী সিংয়ের স্বামী হর্ষের উপর মাদকদ্রব্য আইন ১৯৮৬ এর ধারা 27A আরোপ করা হয়। অর্থাৎ ড্রাগের ক্ষেত্রে অর্থ ও পরিবহণ দিয়ে সাহায্য করত হর্ষ।

মামলার শুনানি চলাকালীন আদালত ভারতী সিং ও হর্ষ লিম্বাচিয়াকে ১৪ দিনের অর্থাৎ ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। সোমবার এনডিপিএসের বিশেষ আদালত এই দুজনের জামিন আবেদন মঞ্জুর করা হয়। এরপর সোমবার দুজন জামিন পান।

এসবের মাঝেই ভারতীর ২০১৫ সালের একটি টুইট এখন সোশাল মিডিয়া তে ভাইরাল। যেখানে ভারতী নিজেই ড্রাগস নেওয়ার বিরুদ্ধে সরব হন। নেট দুনিয়ায় এখন এই টুইট নিয়েই হাসির রোল পড়ে গেছে।
২০১৫ সালে করা ওই ট্যুইটে ভারতী লিখেছিলেন, ‘‘প্লিজ ড্রাগস নেওয়া বন্ধ করুন, এটা স্বাস্থ্যের পক্ষে খারাপ ।’’ এই টুইট করা ভারতী ই এখন মাদক সেবনের জন্য জেলে গেছেন।

Comments
Loading...