‘জয় শ্রীরাম শুনতে না চাইলে চাঁদে গিয়ে থাকুন’, প্রখ্যাত পরিচালক আদুর গোপালকৃষ্ণণকে কটাক্ষ কেরলের বিজেপি নেতার

‘নাম পরিবর্তন করে চাঁদে চলে যান,’ প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি দেওয়া প্রসঙ্গে প্রখ্যাত চিত্র পরিচালক আদুর গোপালকৃষ্ণণকে কটাক্ষ করলেন কেরলের বিজেপি মুখপাত্র তথা আইনজীবী বি গোপালকৃষ্ণণ। বর্ষীয়ান চিত্র পরিচালকের পাশে দাঁড়িয়ে বিজেপি নেতার মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করলেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। বিজেপি নেতাকে পিনারাই বিজয়নের পাল্টা কটাক্ষ, বিজেপির সঙ্গে মতানৈক্য হলেই কি চাঁদে চলে যেতে হবে?
দেশজুড়ে দলিত ও সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচার ও ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনিকে উস্কানিমূলক রণহুঙ্কার হিসেবে ব্যবহার করা নিয়ে তীব্র বিতর্কের মধ্যেই এই সংস্কৃতি ও কার্যকলাপ বন্ধ হস্তক্ষেপ করতে প্রধানমন্ত্রীকে মঙ্গলবার খোলা চিঠি দিয়েছিলেন ৪৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব। চিঠিতে সই ছিল কেরলের বিখ্যাত চিত্র পরিচালক আদুর গোপালকৃষ্ণণ, যাঁর ছবি আন্তর্জাতিক মহলে সমাদৃত বারবার হয়েছে। বিজেপি নেতার মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বর্ষীয়ান চিত্র পরিচালক আদুর গোপালকৃষ্ণণ বলেন, রামের নাম নিয়ে গণপিটুনি দিলে তাঁর মতো রামভক্তরাই বেশি দুঃখ পান।
বিশিষ্টজনদের লেখা এই চিঠিকে একপেশে ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যমূলক বলে কড়া নিন্দা করেন বিজেপি নেতা ও সমর্থকেরা। এই প্রেক্ষিতে আদুর গোপালকৃষ্ণণকে ব্যক্তিগত স্তরে আক্রমণ করে একটি ফেসবুক পোস্ট করেন কেরলের বিজেপি মুখপাত্র বি গোপালকৃষ্ণণ। তিনি লেখেন, জয় শ্রীরাম ধ্বনি না শুনতে চাইলে শ্রীহরিকোটায় নাম নথিভুক্ত করুন গোপালকৃষ্ণণরা, এরপরে চাঁদে পাড়ি দিন। বিজেপি নেতার কথায়, আদুর গোপালকৃষ্ণণের বাড়ির সামনে গিয়েও ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দেওয়া হবে। জয় শ্রীরাম বলা গণতান্ত্রিক অধিকার বলে ফেসবুক পোস্টে লেখেন বি গোপালকৃষ্ণণ। প্রখ্যাত চিত্র পরিচালককে খোঁচা দিয়ে বিজেপি নেতা আরও লেখেন, আদুরের মতো মানুষরা একপেশে নিন্দা ও মন্তব্য করে থাকেন। এঁদের ভিন গ্রহে থাকার নিদান দেন ওই বিজেপি নেতা।
কেরলের বিজেপি নেতার এই মন্তব্যের প্রবল সমলোচনা করেন কেরলে মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। তিনি বলেন, বিরোধী মতপ্রকাশ করলেই কি দেশছাড়া হতে হবে? বিজেপি বিরোধিতা করা মানেই কি সবাইকে চাঁদে যেতে হবে? আদুর গোপালকৃষ্ণণের মতো ব্যক্তিত্ব যিনি কেরলের সংস্কৃতিকে সমৃদ্ধ করেছেন, তাঁর সম্পর্কে বিজেপি নেতা বি গোপালকৃষ্ণণের মন্তব্যের শুধু নিন্দা নয় সর্বস্তরে প্রতিবাদ জানানো উচিত বলে মন্তব্য করেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী।

Comments
Loading...