এ দেশের পীড়িত মুসলিমরা পাকিস্তানে চলে যাক, বিজেপি বিধায়কের মন্তব্যে তীব্র বিতর্ক

ভারতের সংশোধনী নাগরিকত্ব আইনের মতো পাকিস্তানেরও উচিত এমন একটা আইন তৈরি করা, যাতে এ দেশে নির্যাতিত মুসলিমরা সে দেশে চলে যেতে পারেন। উত্তরপ্রদেশের খাটৌলির বিজেপি বিধায়কের মন্তব্যে শুরু হল তীব্র বিতর্ক।
দেশজোড়া চলছে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। তিন প্রতিবেশী দেশের ছয় অ-মুসলিম ধর্মাবলম্বী শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার জন্য এই কেন্দ্রীয় আইনের বিরোধিতায় গর্জে উঠেছে পড়ুয়া থেকে সাধারণ মানুষ এবং বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। তাদের অভিযোগ, এভাবে ধর্মীয় বিভাজনের ভিত্তিতে শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়া ‘অসাংবিধানিক’। এই পরিপ্রেক্ষিতে উত্তরপ্রদেশের খাটৌলির বিজেপি বিধায়ক বিক্রম সাইনির মন্তব্যকে কেন্দ্র করে নয়া বিতর্ক শুরু হয়েছে। পাকিস্তানের উদ্দেশে সাইনির পরামর্শ, তাদেরও উচিত এ দেশের মতো একটা নাগরিকত্ব আইন করা। যাতে এ দেশের ‘পীড়িত মুসলিম’রা পাকিস্তানে আশ্রয় নিতে পারে। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিজেপি বিধায়কের বার্তা, ‘আদলা বদলি কর লো’ (অদল-বদল করে নাও)। যারা পাকিস্তানে নিগৃহীত হচ্ছে, তারা এ দেশে চলে আসতে পারে, যাদের এ দেশে থাকতে সমস্যা হচ্ছে, তারা পাকিস্তানে চলে যাক। কে তাদের আটকাচ্ছে? মন্তব্য বিজেপি বিধায়কের।  সাইনি যোগ করেন, পাকিস্তানেরও এমন আইন থাকা উচিত, যে মুসলিমরা এ দেশে পীড়িত হচ্ছে তাদের পাক নাগরিকত্ব দেওয়া।
এর আগেও একাধিকবার নানা ইস্যুতে মন্তব্য করে বিতর্ক সৃষ্টি করেছেন যোগী রাজ্যের এই বিজেপি বিধায়ক। গত অগাস্ট মাসে জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর তাঁর মন্তব্য ছিল, এখন দলের (বিজেপি) মুসলিম কর্মীদের আনন্দ করা উচিত। তারা এখন কাশ্মীরের সাদা চামড়ার মহিলাকে বিয়ে করতে পারবে। কোনও অসুবিধে হবে না।

Comments
Loading...