কর্মীরা যেন হাসপাতালে ভিড় না করে, অন্য রোগীদের অসুবিধা হবে, পার্টি নেতৃত্বকে বললেন স্থিতিশীল বুদ্ধদেব

বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। বর্তমানে তাঁর রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর জন্য গঠন করা হয়েছে ৭ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড। শরীরে অক্সিজেনের পরিমাণ কম থাকায় তাঁকে মাঝেমাঝে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে। রয়েছে ডায়াবেটিসের সমস্যা এবং নিউমোনিয়ার সংক্রমণ। শনিবার সকালে তাঁকে আরও এক ইউনিট রক্ত দেওয়া হয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৮ টা নাগাদ গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে উডল্যান্ডস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর তীব্র শ্বাসকষ্ট ছিল, কম ছিল রক্তচাপও। রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ অনেকটাই কমে যায়। হাসপাতাল সূত্রে খবর, শুক্রবার রাতে বুদ্ধদেববাবুকে এক ইউনিট রক্ত দেওয়া হয়।

শনিবার সকালে তাঁর শারীরিক অবস্থা অনেকটাই স্থিতিশীল রয়েছে। তবে বুদ্ধদেববাবু এর মধ্যেই বাড়ি ফিরতে চাইছেন বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবং পার্টি নেতৃত্ব। যদিও চিকিৎসকরা তাঁকে এখনই বাড়ি পাঠাতে রাজি নন। সমস্ত পরীক্ষার রিপোর্ট খতিয়ে দেখেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম জানান, একটু সুস্থ হয়েই বুদ্ধদেববাবু বাড়ি ফিরতে চাইছেন। কিন্তু চিকিৎকদের সবুজ সঙ্কেত ছাড়া তাঁকে বাড়ি নেওয়া হবে না।

শনিবার সকালে বুদ্ধদেববাবু সিপিএম নেতৃত্বকে জানান, তাঁকে দেখতে যেন পার্টি কর্মীরা হাসপাতালে অযথা ভিড় না করেন। তাতে অন্যান্য রোগীদের অসুবিধা হবে। এদিন বুদ্ধদেববাবুকে দেখতে হাসপাতালে আসেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ।
দীর্ঘদিন ধরেই সিওপিডিতে ভুগছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। যার জেরে পার্টি অফিসে যাওয়াও ছেড়ে দিয়েছেন অনেকদিন। বাড়িতেও তাঁকে অধিকাংশ সময় অক্সিজেন নিতে হয়। কিন্তু শুক্রবার সন্ধ্যায় তাঁর শারীরিক অবস্থা আচমকা খারাপ হলে সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে যান মুখ্যমন্ত্রী, রাজ্যপাল। সিপিএম নেতৃত্বও পৌঁছোন হাসপাতালে। গোটা রাত তাঁকে পর্যবেক্ষণে রাখেন চিকিৎসকরা। চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর নিউমোনিয়া হয়েছে। তাই তাঁর চিকিৎসা প্রয়োজন।

Comments
Loading...