বুলন্দশহরের হিংসায় পুলিশ অফিসার খুনে অভিযুক্ত সেনা জওয়ান ধৃত

গত সোমবার উত্তর প্রদেশের বুলন্দশহরে গো মাংস উদ্ধার ও বেআইনি গো-কসাইখানা বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ ও তা থেকে সৃষ্ট হিংসায় পুলিশকর্মী সুবোধ কুমার সিংহের মৃত্যুর ঘটনায় এক সেনা জওয়ানকে গ্রেফতার করল ইউ পি পুলিশ।
সূত্রের খবর, গত প্রায় দু’দিন ধরে জীতেন্দ্র মালিক নামের ওই সেনা জওয়ানের সন্ধান চালাচ্ছিল পুলিশ। জানা গেছে, জম্মু-কাশ্মীরের সোপর থেকে আটক করে শনিবার গভীর রাতে তাঁকে পুলিশের হাতে তুলে দেন সেনা আধিকারিকেরা। রবিবার তাঁকে উত্তর প্রদেশে নিয়ে এসে কোর্টে তোলা হয়েছে।
পুলিশ জানিয়েছে, প্রাথমিক তদন্তে তারা ঘটনার সময়কার যে ছবি ও ভিডিও হাতে পেয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে বিক্ষোভকারীদের হয়ে স্লোগান দিচ্ছিলেন ওই সেনা জওয়ান। এমনকী বিক্ষোভকারীদের প্ররোচিত করতেও দেখা গেছে তাঁকে। একজন সেনা কর্মী হয়ে জীতেন্দ্র ওই বিক্ষোভে কেন সামিল হলেন এবং কেন স্লোগান দিচ্ছিলেন তা ভাবাচ্ছে তদন্তকারীদের। যে গুলিতে পুলিশকর্মী সুবোধ কুমারের মৃত্যু হয়, তা কি এই সেনা জওয়ানই চালিয়েছিলেন, তাও খতিয়ে দেখতে জীতেন্দ্রকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত বজরং দল সমর্থক যোগেশ রাজকে এখনও ধরতে পারেনি পুলিশ। দ্রুত তাঁকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
উল্লেখ্য, সোমবারের ওই হিংসার মাঝে পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন পুলিশ কর্মী সুবোধ কুমার এবং সুমিত নামের এক কলেজ পড়ুয়া। ২০১৫ সালে উত্তর প্রদেশের দাদরিতে বাড়িতে গো মাংস রাখার অভিযোগে মহম্মদ আখলাক নামের এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে মারে জনতা। সেই ঘটনার তদন্ত করেছিলেন সুবোধ কুমার। পরে অবশ্য তদন্ত শেষ হওয়ার আগেই তাঁকে ট্রান্সফার করে দেওয়া হয়। এই ঘটনার সাথে দাদরির ঘটনার কোনও যোগসূত্র আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Comments
Loading...