অর্ণবের জামিনে সুপ্রিম কোর্টের সমালোচনা, কুণাল কামরার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা

অর্ণব গোস্বামী প্রসঙ্গে মন্তব্য করে ফের বিতর্কে স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ান কুণাল কামরা। বৃহস্পতবার আদালত অবমাননার মামলা দায়ের হল তাঁর বিরুদ্ধে।

বুধবার অর্ণব গোস্বামীকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেওয়ার পর সুপ্রিম কোর্টের তীব্র সমালোচনা করেন কুণাল কামরা। সিরিজ ট্যুইটে শীর্ষ আদালতকে নিয়ে মজা করেছেন তিনি। এই অভিযোগে কুণাল কামরার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করতে চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের অ্যাটর্নি জেনারেল কেকে বেণুগোপালের সম্মতি চান মুম্বইয়ের আইনজীবী রিজওয়ান সিদ্দিকি। অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের আইনজীবী হিসেবে পরিচিত রিজওয়ান সিদ্দিকির অভিযোগ, সুপ্রিম কোর্টকে নিয়ে কুণাল কামরার অশ্লীল মন্তব্য করেছেন। দেশের মানুষের মনে বিচারব্যবস্থা নিয়ে যে সম্ভ্রম ও সম্মান আছে তা নষ্ট করতে চেয়েছেন তিনি। এই প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার পুণের আরও দুই আইনজীবী এবং এক আইনের পড়ুয়া স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করতে চেয়ে অ্যাটর্নি জেনারেলকে আবেদন জানান।

বৃহস্পতিবার বেলার দিকে স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ানের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের অনুমতি দেন অ্যাটর্নি জেনারেল। কুণালের সংশ্লিষ্ট ট্যুইটগুলিকে গুরুতর আপত্তিজনক বলে তাঁর বিরুদ্ধে ফৌজদারি আদালত অবমাননার মামলা করা যায় বলে উল্লেখ করেছেন বেণুগোপাল।

ঠিক কী ট্যুইট করেছিলেন কুণাল কামরা?

বুধবার এক ট্যুইটে শীর্ষ আদালতকে ‘দেশের সুপ্রিম জোক’ বলে কটাক্ষ করেন কুণাল। পাশাপাশি সুপ্রিম কোর্টের একটি ছবি এডিট করে তাতে গেরুয়া রং ও বিজেপির পতাকা লাগিয়ে দেন। এক ট্যুইটে অর্ণব গোস্বামীর আইনজীবীকে কটাক্ষ করে কুণাল লেখেন, যেভাবে জাতির স্বার্থে সুপ্রিম কোর্ট কাজ করছে তাতে মহাত্মা গান্ধীর ছবি সরিয়ে হরিষ সালভের ছবি লাগানোর সময় এসেছে। আরও এক ট্যুইটে তিনি বিচারপতি চন্দ্রচূড়কেও আক্রমণ করেন বলে অভিযোগ। আইনজীবী সিদ্দিকির অভিযোগ, বুধবার অর্ণব মামলার শুনানি চলার সময় এবং শুনানির পরেও যেসব ট্যুইট কুণাল করেছেন তাতে কলঙ্কিত করা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টকে।

এদিকে বুধবার দিনভর কুনালের এই ট্যুইটগুলি সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনায় জড়ান বহু আইনজীবী।

তাঁদের অনেকের দাবি, কুণালের ট্যুইটগুলিতে আদালত অবমাননা হচ্ছে। যার প্রেক্ষিতে আবার এই স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ান জানান, সুপ্রিম কোর্টের কাছ থেকেই তিনি অনুপ্রেরণা নিচ্ছেন। এক ট্যুইটে লেখেন, লোকেদের যদি আমার “আদালতের অবমাননা” পছন্দ না হয় তবে তাঁদের তা না দেখাই উচিত। প্রসঙ্গত, বিচারপতি চন্দ্রচূড় অর্ণব গোস্বামীর জামিনের আবেদনের শুনানি করতে গিয়ে বলেছিলেন, লোকেদের যদি অর্ণবের চ্যানেল পছন্দ না হয়, তাঁরা যেন তা না দেখেন। আইনজীবী সিদ্দিকির তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করতে চাওয়ার খবর প্রসঙ্গে কুণালের কটাক্ষ, যে সুপ্রিম কোর্ট আগেই আপোষ করে নিয়েছে তাকে কলঙ্কিত করার আমি কে? তিনি আর এক ট্যুইটে লেখেন আদালতের অবমাননা করিনি, এটা ভবিষ্যতের রাজ্যসভার আসনের অবমাননা।

Comments
Loading...