সীমান্ত দিয়ে কেউ যেন রাজ্যে অনুপ্রবেশ করতে না পারে, উত্তর ২৪ প্রশাসনিক বৈঠকে কড়া বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

সীমান্ত দিয়ে যেন কোনও অনুপ্রবেশ না হয়। পুলিশের পাশাপাশি নজর রাখতে হবে সাধারণ মানুষকেও। শুক্রবার উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রামের প্রশাসনিক বৈঠক থেকে কড়া নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের ডিজি বীরেন্দ্র এবং নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুরজিৎ কর পুরকায়স্থের উপস্থিতিতে জেলা পুলিশ আধিকারিকদের উদ্দেশে মমতা বললেন, সীমান্ত পেরিয়ে এপারে এসে কেউ গোলমাল বাধিয়ে চলে গেল, এমনটা হতে দেওয়া যাবে না।
গত কয়েক বছর ধরে উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় বনগাঁ, বসিরহাট এলাকায় সীমান্তে অনুপ্রবেশ নিয়ে সুর চড়িয়েছে বিজেপি। তাদের অভিযোগ, সীমান্ত পেরিয়ে দুষ্কৃতীরা এসে গোলমাল পাকাচ্ছে। ২০১৭ সালে বসিরহাটে সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষের সময়ও একই অভিযোগ করা হয়েছিল বিজেপির তরফে। এমনকী লোকসভা ভোটের পরও তৃণমূল-বিজেপির রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়েছে বসিরহাট। এই প্রেক্ষিতে এবার প্রশাসনিক বৈঠক থেকে পুলিশ এবং সাধারণ মানুষকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। বললেন, পুলিশের কাজ পুলিশ করবে, তার সঙ্গেই নজর রাখতে হবে সাধারণ মানুষকেও। তেমন কিছু চোখে পড়লেই জানাতে হবে সংশ্লিষ্ট দফতরকে। শুধুমাত্র পুলিশ একাজ করতে পারবে না বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। তাই একাজে সাধারণ মানুষকেও এগিয়ে আসার আহ্বান জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
পাশাপাশি, এদিন জেলার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতিও খতিয়ে দেখেন মুখ্যমন্ত্রী। বৈঠকে হাজির ছিলেন জেলার প্রায় সমস্ত পুলিশ আধিকারিক। উল্লেখযোগ্য অনুপস্থিতি ছিল বারাকপুরের পুলিশ কমিশনার মনোজ ভার্মার। লোকসভা ভোটের পর বারবার উত্তপ্ত হয়েছে বারাকপুরের নৈহাটি, ভাটপাড়া এলাকা। এদিন প্রশাসনিক বৈঠকে সেই মনোজ ভার্মার ভূয়সী প্রশংসা করেন মুখ্যমন্ত্রী। বারাকপুরের পরিস্থিতি নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ওখানে খেলার মতো বোমা ছোড়াছুড়ি হয়। মনোজকে তাই আজ আসতে বারণ করেছি। ওখানকার পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে মনোজই ‘দ্য বেস্ট’ বলেও এদিন প্রশাসনিক বৈঠক থেকে মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন জেলার অন্যান্য থানার আধিকারিকদেরও আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী। বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহান বসিরহাট কলেজে একটি অডিটোরিয়াম তৈরির আর্জি জানান। মুখ্যমন্ত্রী এমপি ল্যাডের টাকা দিয়ে অডিটোরিয়াম করার পরামর্শ দেন সাংসদ নুসরত জাহানকে।

Comments
Loading...