মুখ্যমন্ত্রীর সচিবালয় পেল স্কচ ফাউন্ডেশনের অনন্য স্বীকৃতি, নাগরিকের অভিযোগ নিরসনে জাতীয় শ্রেষ্ঠ সম্মান বাংলার

ফের বিখ্যাত স্কচ ফাউন্ডেশনের দেওয়া অনন্য সম্মান পেল পশ্চিমবঙ্গ। এবার নাগরিক অভিযোগ নিরসনে মুখ্যমন্ত্রীর অফিস বা সচিবালয়কে (CMO) সর্বোচ্চ ডিজিটাল ইন্ডিয়া প্ল্যাটিনাম অ্যাওয়ার্ড দিল স্কচ ফাউন্ডেশন। বৃহস্পতিবার দিল্লিতে ৬৫ তম স্কচ সামিটে এই সম্মান পেল মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির অফিস।

বিভিন্ন জনমুখী প্রকল্প ও কাজের জন্য প্রতি বছর স্কচ ফাউন্ডেশনের তরফে ১০ টি রুপো, তিনটি সোনা এবং একটি প্ল্যাটিনাম অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। রাজ্যগুলির মধ্যে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা দেখা যায় স্কচ প্ল্যাটিনাম অ্যাওয়ার্ডের জন্য। এবার ৪ হাজার মনোনয়নের মধ্যে শেষ পর্যন্ত বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির অফিসের স্বতন্ত্র উদ্যোগকে বেছে নেওয়া হয়। নাগরিক অভিযোগ নিরসনে মুখ্যমন্ত্রীর অফিসের অধীনে তৈরি হয় পাবলিক গ্রিভেন্সেস ম্যানেজমেন্ট মডেল। এই ডিজিটাল পরিকল্পনার মাধ্যমে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির উদ্দেশে নাগরিকরা যে সব ক্ষোভের কথা জানাতেন তা সমাধানের পদক্ষেপ করা হোত।

গত বছর চালু হওয়া এই পরিকল্পনায় দারুণ সাড়া মিলেছে। ৮ লক্ষ ১৬ হাজার ক্ষোভ, অভিযোগ জমা পড়েছিল। যার ৯৫ শতাংশই সমাধান করেছে মুখ্যমন্ত্রীর অফিস। দেশের মধ্যে সেরা ডিজিটাল মডেল হিসেবে একে স্বীকৃতি দিল স্কচ ফাউন্ডেশন। পেল ডিজিটাল ইন্ডিয়া প্ল্যাটিনাম অ্যাওয়ার্ড। এই অনন্য সম্মানে স্বাভাবিকভাবেই খুশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তাঁর অফিসের সমস্ত আধিকারিককে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি। এর আগে ২০১৪ সালে রাজ্যের শুল্ক দফতর ই- আবগারি প্রোজেক্টের জন্য স্কচ প্ল্যাটিনাম অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিল।

 

Comments
Loading...