CNX-ABP Ananda Opinion Poll: দ্বিতীয় দফার সমীক্ষাতেও এগিয়ে TMC, আসন কমার ইঙ্গিত BJP এর

বাড়বে তৃণমূলের আসন সংখ্যা কমবে বিজেপির। সিএনএক্স- এবিপি আনন্দর দ্বিতীয় দফার সমীক্ষাতেও দেখা গেল এই ফল। ফেব্রুয়ারির তৃতীয় সপ্তাহে বিধানসভার ২৯৪ আসনের মধ্যে ১১৭ টি আসনের সমীক্ষা করা হয়েছিল। ৯ হাজার ৩৬০ জনের মতামত নেওয়া হয়েছিল সমীক্ষায়। সেখানে তৃণমূলের একক সংখ্যাগরিষ্ঠতার সম্ভাবনা রয়েছে বলে স্পষ্ট করা হয়েছে। কিন্তু ভোট শতাংশের দিক থেকে দুই সমীক্ষাতেই তৃণমূল ৪২% ভোট পাবে বলে মনে করা হচ্ছে। বিজেপির ভোট শতাংশ ৩৭% থেকে কমে হয়েছে ৩৪%। সংযুক্ত মোর্চার ভোট শতাংশ ১৭% থেকে থেকে বেড়ে ২০% হতে পারে।

সমীক্ষায় বলা হয়েছে, তৃণমূল পেতে পারে ১৫৪ থেকে ১৬৪ আসন। বিজেপি পেতে পারে ১০২ থেকে ১১২ টি আসন। সংযুক্ত মোর্চার দখলে যাবে ২২ থেকে ৩০টি আসন। আর অন্যরা পেতে পারেন ১ থেকে ৩ আসন। বাংলার বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে কয়েকমাস আগেই সিএনএক্স প্রথম সমীক্ষাটি করেছিল। সেখানেও তৃণমূলের আসন সংখ্যা বাড়বে বলে দেখা গিয়েছিল। তৃণমূলের দখলে ১৪৬ থেকে ১৫৬ টি আসন যেতে পারে বলে জানানো হয়েছিল। বিজেপি পেতে পারে ১৩ থেকে ১২১টি আসন। বাম-কংগ্রেস ২০ থেকে ২৮ টি আসন এবং অন্যেরা ১ থেকে ৩টি আসন পাবে বলে জানানো হয়েছিল সমীক্ষায়।

[আরও পড়ুন- মঙ্গলেই নন্দীগ্রামে মমতা, বুধে মনোনয়ন, করতে পারেন জোড়া পদযাত্রা]

রাজ্যে বিধানসভার আসন সংখ্যা ২৯৪। একক সংখ্যা গরিষ্ঠতা পেতে হলে যে কোনও দল বা জোটকে কমপক্ষে ১৪৮ আসন পেতে হবে। সিএনএক্স-এর প্রথম সমীক্ষায় তৃণমূল ম্যাজিক ফিগার ছুঁতে পারেনি। কিন্তু দ্বিতীয় সমীক্ষায় দেখা যায় ১৫৪ থেকে সর্বোচ্চ ১৬৪টি আসন পেতে পারে ঘাসফুল শিবির।

অন্যদিকে, প্রথম সমীক্ষায় বিজেপি ন্যুনতম ১১৩টি আসন আর সর্বোচ্চ ১২১টি আসন পাবে বলে মনে করা হচ্ছিল। কিন্তু দ্বিতীয় দফার সমীক্ষায় তা কমে দাঁড়ায় ১০২টি আসন। বিজেপির সর্বোচ্চ আসনের সংখ্যাও কমে দাঁড়ায় ১২১ থেকে ১১২তে। সংযুক্ত মোর্চার আসন সংখ্যা প্রথম আর দ্বিতীয় দফাতে একই রয়েছে। প্রথম সমীক্ষায় বাম-কংগ্রেসের আসন ছিল ২০ থেকে ২৮টি। দ্বিতীয় দফাতে তা হয়েছে ২২ থেকে ৩০টি আসন।

সমীক্ষায়তে জনপ্রিয়তার দিক থেকে প্রথমেই নাম আছে মমতা ব্যানার্জির। কিন্তু দুর্নীতি এবং পরিবারতন্ত্রের দিকে বেশ কিছুটা পিছিয়ে রয়েছে তৃণমূল। ৫৯% এর মুখে তৃণমূলের দুর্নীতির প্রসঙ্গ উঠে এসেছে। পরিবারতন্ত্রের অভিযোগ এনেছেন ৬৯%। তৃণমূলের সাম্প্রদায়িকতার নিরিখে কথা বলেছেন ৪০%। কিন্তু বিজেপির ক্ষেত্রে সাম্প্রদায়িকতার অভিযোগ এনেছেন ৬০%। শুভেন্দু অধিকারীর দলত্যাগের প্রসঙ্গে তৃণমূলের ভোট কমবে বলে মনে করছেন ৪৯%। অন্যদিকে শুভেন্দু অধিকারীর দলত্যাগ ভোটের ক্ষেত্রে কোনও প্রভাব ফেলতে পারবে না বলে মনে করেছেন ৩২% মানুষ।

Comments
Loading...