স্বল্প মাত্রায় কোভিড সংক্রমিতের চিকিৎসা করা যাবে বাড়িতে, জানাল কেন্দ্রীয় সরকার

গোটা দেশে এই মুহূর্তে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩০ হাজার ছুঁই ছুঁই। চাপ বাড়ছে সরকারি ও বেসরকারি কোভিড ১৯ হাসপাতালগুলোতে। এছাড়াও কোনও রোগী যদি করোনায় আক্রান্ত হন, তাহলে তাঁর পরিবারের উপরও এক গভীর চাপ সৃষ্টি হয়। আর তাই কোভিড-১৯ হাসপাতালগুলির উপর থেকে রোগীর চাপ কিছুটা কমাতে এবার যে সব কোভিড আক্রান্ত রোগীর মধ্যে রোগের উপসর্গ খুবই কম বা নেই বললেই চলে, তাঁদের এবার নিজেদের বাড়িতেই আইসোলেশনে থাকার পরামর্শ দিল স্বাস্থ্য মন্ত্রক।
কারা থাকবেন এই হোম আইসোলেশনে?
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের জারি করা গাইডলাইন অনুযায়ী, যে সব রোগীর মধ্যে সংক্রমণের মাত্রা খুবই কম, বা সেরকম কোনও উপসর্গ দেখা দেয়নি, তাঁরা এখন থেকে নিজেদের বাড়িতেই থাকতে পারবেন। যদিও তার জন্য আক্রান্ত রোগীদের বেশি কয়েকটি সরকারি নির্দেশিকা পালন করতে বলা হয়েছে সেই গাইডলাইনে।
আক্রান্ত রোগীদের সবসময় সরকার নিযুক্ত একজন সার্ভিলেন্স অফিসার ও একটি হাসপাতালের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে হবে। এছাড়াও রোগীদের একটি অঙ্গীকার পত্রে এই মর্মে সই করতে হবে যে তাঁরা এই আইসোলেশনের সমস্ত নিয়ম মেনে চলবেন ও তাঁর জন্য নির্দিষ্ট ঘরে পরিবারের অন্যান্য ব্যক্তি বিশেষ করে বয়স্ক মানুষের থেকে দূরত্ব বজায় রাখবেন। তবেই মিলবে বাড়িতে থাকার অনুমতি।
এছাড়াও আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার জন্য ২৪ ঘণ্টা একজন কেয়ার গিভারকে রোগীর কাছে থাকতে হবে। এবং সেই কেয়ার গিভারের সঙ্গে হাসপাতালের একটি যোগাযোগের মাধ্যম এই ক্ষেত্রে বাধ্যতামূলক। এছাড়াও সেই কেয়ার গিভার ও রোগীর আশেপাশে থাকা সমস্ত ব্যক্তির ডাক্তারি পরামর্শমত সঠিক পরিমাণে হাইড্রক্সিক্লরোকুইন প্রোফাইলাক্সইস নিতে হবে।
রোগীকে তাঁর স্বাস্থ্যের উপর নজর রাখতে হবে ও তাঁর স্বাস্থ্য সম্পর্কে সেই সার্ভিলেন্স অফিসারকে আপডেট দিতে হবে। এছাড়াও নিজের মোবাইলে আরোগ্য সেতু অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে ও ব্লুটুথ ও ওয়াই ফাই-এর মাধ্যমে সেই অ্যাপ সবসময় চালু রাখতে হবে।
যদি রোগের কোনও রকমের গুরুতর উপসর্গ, যেমন শ্বাসকষ্ট, বুকে ব্যাথা, মানসিক অসঙ্গতি বা মুখ অথবা ঠোঁট নীলচে রঙ দেখা যায়, তাহলে অবিলম্বে ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে।
কতদিন থাকতে হবে এভাবে?
হোম আইসোলেশন-এ থাকা রোগীরা তখনই মুক্তি পাবেন, যখন তাদের শরীরে রোগের সমস্ত উপসর্গ মিটে যাবে ও সমস্ত রকমের ডাক্তারি পরীক্ষায় তাদের রোগমুক্ত বলে ঘোষণা করা হবে।

Comments
Loading...