প্রিওয়েডিং ফটোশুটে এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে অভিনব প্রতিবাদ কেরলের যুগলের

এনআরসি ও সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় তীব্র হচ্ছে আন্দোলন। ফুটছে দেশ। এই প্রেক্ষিতে নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি-র বিরোধিতায় দৃঢ় অথচ শান্তিপূর্ণভাবে অভিনব কায়দায় প্রতিবাদ (Couple Protest) জানালেন কেরলের জি এল অরুণ গোপী ও আশা শেখর।
আগামী ২১ জানুয়ারি সাত পাকে বাঁধা পড়তে চলেছেন তিরুবনন্তপুরমের জি এল অরুণ গোপী ও কোল্লামের আশা শেখর। সম্প্রতি প্রি ওয়েডিং ফটোশুট করেছেন তাঁরা। তবে হবু দম্পতির এই ফটোশুটে কোনও উচ্ছ্বলতা দেখা যায়নি। বরং জীবনের স্মরণীয় দিনেও তাঁদের চোখেমুখে উদ্বেগ ও মনখারাপের স্পষ্ট ছাপ। অরুণের হাতে ধরা পোস্টারে ইংরেজিতে লেখা ‘নো সিএএ’। আর হবু স্ত্রী আশার হাতে পোস্টারে লেখা ‘ নো এনআরসি’। কেরলের হবু দম্পতির এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে শান্তিপূর্ণ মেসেজ এই মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল।
কিন্তু প্রিওয়েডিং ফটোশুটে এমন অভিনব ভাবনা কীভাবে এল? হবু দম্পতি জানিয়েছেন, কেন্দ্রের নয়া বিল ও এনআরসি-র বিরুদ্ধে তাঁরা। ১৫ ডিসেম্বর দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত পড়ুয়াদের উপর পুলিশি আক্রমণের পর প্রিওয়েডিং ফটোশুটেই নিজেদের অবস্থান জানানোর জন্য এই পরিকল্পনা নেন তাঁরা(Couple Protest)। কেরল শিশু কল্যাণ দফতরের কোষাধ্যক্ষ অরুণ গোপীর কথায়, ছোট থেকেই আমি রাজনীতি সচেতন। কেন্দ্রের এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইনের সর্বতোভাবে বিরোধিতা করি। সাংবাদিক হিসেবে বহু সংবাদমাধ্যমে কাজ করেছেন আশা শেখর। বর্তমানে সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার জন্য তৈরি হচ্ছেন তিনি। তাঁর কথায়, আমরা দু’জনেই চেয়েছিলাম এনআরসি ও সংশোধনী নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে সদর্থক প্রতিবাদ জানাতে। কিন্তু ভাবিনি, সোশ্যাল মিডিয়ায় এত গভীর প্রভাব ফেলবে আমাদের ছবি। অরুণ বলেন, এখনও পর্যন্ত কোনও নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া পাইনি। খুব ভালো লাগছে। কেন্দ্রের এই আইন প্রত্যাহার করা হলেই তাঁদের এই প্রয়াস স্বার্থক হবে বলে জানান কেরলের হবু দম্পতি।
Comments
Loading...