এপ্রিল-জুলাই, গত বছরের তুলনায় এ বছর রাজ্যে সামগ্রিক মৃত্যু কম, কোভিড নিয়ে অযথা আতঙ্কিত হবেন না, বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর, আর কী বললেন?

২০১৯ সালের পয়লা এপ্রিল থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত রাজ্যে মোট মৃত্যু হয়েছিল ১ লক্ষ ২০ হাজার ৪৫৭ জনের। আর এ বছর একই সময়ের মধ্যে রাজ্যে মৃত্যু ১ লক্ষ ১৯ হাজার ৯১৬ জনের। অর্থাৎ এ বছর একই সময় রাজ্যে ৫৪১ জনের কম মৃত্যু হয়েছে। অথচ কোভিড ১৯ মহামারি চলছে।
কেন্দ্র থেকে রাজ্য, কোভিড পর্বের শুরু থেকেই বারবার বলা হয়েছে, করোনা নিয়ে আতঙ্কের কিছু নেই। সুরক্ষাবিধি মেনে চললে সংক্রমণ থেকে দূরে থাকা যায়। এবার পরিসংখ্যান দিয়ে সেই মত প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। ফের বললেন, করোনা মহামারি নিয়ে অযথা আতঙ্কিত না হয়ে সাবধানে থাকার চেষ্টা করতে হবে।
মাঝে সংক্রমণের হার বৃদ্ধি পাওয়ায় সাপ্তাহিক লকডাউনের পথে গিয়েছিল রাজ্য সরকার। স্বাস্থ্য দফতরের কর্তাদের বক্তব্য, তারই সুফল মিলছে। ক্রমশ কমছে সংক্রমণের হার। বুধবার মুখ্যমন্ত্রী নবান্ন থেকে বলেন, রাজ্যে নমুনা পরীক্ষার হার বেড়েছে, তাই সংক্রমিতের সংখ্যা বেশি চোখে পড়়ছে। কিন্তু সংক্রমণের হারের চেয়ে সুস্থতার হার অনেক বেশি। করোনা পর্বের শুরুতে জনমানসে ধারণা তৈরি হয়েছিল, স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়ার পথে। স্বভাবতই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছিল সাধারণ মানুষের মধ্যে। কিন্তু এদিনের পরিসংখ্যানে একটা জিনিস সাফ, করোনা অতিমারির প্রাবল্য ক্রমশ কমছে।
স্বাস্থ্য দফতরের বিশেষজ্ঞদের দাবি, এখন যে হারে টেস্ট হচ্ছে এবং চিকিৎসা পরিকাঠামো যেভাবে পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে, তাতে এই হার বজায় থাকলে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে রাজ্যে সুস্থতার হার ৮৫ শতাংশ পেরিয়ে যাবে।
এদিন নবান্নে রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের কথা জানান মুখ্যমন্ত্রী। তার মধ্যে তিনি জানান, রাজ্যের ৩৯ লক্ষ উপভোক্তার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে বিভিন্ন সামাজিক প্রকল্পের টাকা বাবদ মোট ১৮৮২ কোটি টাকা দিয়ে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি জানান, তাজপুরে সমুদ্র বন্দরের কাজ করবে রাজ্য সরকারই। এছাড়াও দিঘায় মুকেশ আম্বানীর জিও একটি কেবল ল্যান্ডিং স্টেশন তৈরি করার বরাত পেয়েছে। এর আগে চেন্নাই ও মুম্বইয়ে এই ব্যবস্থা ছিল। এবার সেই মানচিত্রে ঢুকে পড়তে চলেছে বাংলাও। এর জেরে রাজ্যের ডেটা ট্রান্সমিশনের ভোল বদল হবে বলে দাবি করেছেন রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীবা সিনহা। এছাড়াও ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট ব্রডব্যান্ড পলিসি ২০২০ কেও অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

Comments
Loading...