বিজেপি-তৃণমূলকে পাল্লা দিতে এবার ডিজিটাল টিম বানাচ্ছে সিপিএম, ডিজিটাল স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করছে আলিমুদ্দিন

সম্প্রতি পোল স্ট্র্যাটেজিস্ট প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুরু হয়েছে ‘দিদিকে বলো’ ক্যাম্পেন। শুরুতেই মিলেছে অভাবিত সাড়া। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারে ইতিমধ্যেই একাধিক নতুন চমক নিয়ে হাজির হয়েছে তৃণমূল।
এবার তৃণমূল-বিজেপির সঙ্গে পাল্লা দিতে সংগঠিতভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার কর্মচূচি নিতে চলেছে সিপিএমও। এতদিন পর্যন্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় বিচ্ছিন্নভাবে সিপিএমের পক্ষ থেকে নানারকম পদক্ষেপ নেওয়া হলেও, কখনই তা খুব একটা সংগঠিতভাবে করা হয়নি। বরং কখনও কখনও বিভিন্ন সিপিএম নেতার সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টের জন্য বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে দলকে। কখনও মানব মুখোপাধ্যায় শতরূপ ঘোষের ফেসবুক পোস্টে তৈরি হয়েছে বিতর্ক, কখনও আবার খোদ রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রর তৃণমূল নেত্রীর ইংরেজি উচ্চারণ নিয়ে ট্যুইটার পোস্টে বিড়ম্বনায় পড়েছে আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। এবার এক্কেবারে সংগঠিতভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্যাম্পেন শুরু করতে উদ্যোগ নিল আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। ডিজিটাল স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করার জন্য রাজ্য সিপিএমের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে ফেসবুক পেজ এবং দলীয় ওয়েবসাইটে।

বুধবার ফেসবুকে সিপিএমের তরফে একটি পোস্ট করা হয়। সেই পোস্টে সিপিএমের হয়ে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে কাজ করতে ইচ্ছুকদের আহ্বান জানানো হয়েছে। মূল উদ্দেশ্য, মাঠে-ময়দানের লড়াইকে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে পৌঁছে দেওয়া।
বাংলার সাংস্কৃতিক, ধর্মীয়, আঞ্চলিক ভাষাগত এবং জাতিগত বৈচিত্র রক্ষার জন্য অনুকূল পরিবেশ তৈরি করা। শান্তি ও ঐক্য রক্ষা, ব্যক্তিগত মর্যাদা, আত্মসম্মান, নিরাপত্তা-সুরক্ষা, জীবন ও জীবিকাকে সুরক্ষিত রাখা। মানুষের মধ্যে বাম, গণতান্ত্রিক, ধর্মনিরপেক্ষ এবং প্রগতিশীল ভাবনার প্রসার ঘটানো, মূলত এই লক্ষ্যেই পরিচালিত হবে সিপিএমের ডিজিটাল টিম। এবার সেই টিমেই স্বেচ্ছাসেবক নিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দেওয়া হয়েছে। দলের প্রথম সারির নেতারা প্রায় প্রত্যেকেই এই পোস্টটি শেয়ার করেছেন। পোস্টে যোগাযোগের ঠিকানা বা ফোন নম্বর ছাড়াও একটি সাইন আপ অপশন রাখা হয়েছে। যাতে ক্লিক করে ইচ্ছুক ব্যক্তিরা সরাসরি সিপিএমের ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে যোগ দিতে পারবেন। পাশাপাশি, বেশ কয়েকজন একসঙ্গে যদি সিপিএমের ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে যোগ দিতে চান, তারও ব্যবস্থা আছে। সেক্ষেত্রে অবশ্য প্রস্তাবটি প্রথমে মেল করতে হবে সিপিএমের কাছে।

বর্তমান ভারতের শহুরে রাজনীতির একটি বড় দিক হয়ে উঠেছে ডিজিটাল মাধ্যম। বেশ কয়েক বছর হল, কংগ্রেস কিংবা বিজেপি, ডিজিটাল মাধ্যমে জোরকদমে প্রচার এবং অন্যান্য কর্মসূচি নিয়ে আসছে। রাজ্যে এবার একই উদ্যোগ নিয়েছে তৃণমূলও। এতদিন পর্যন্ত সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম কিংবা সুজন চক্রবর্তীরা ফেসবুক এবং ট্যুইটারে অ্যাকটিভ থাকলেও, সার্বিকভাবে সিপিএমের তরফে এমন উদ্যোগ চোখে পড়েনি। এবার ডিজিটাল মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবক নিয়ে সেই কাজেই সংগঠিতভাবে মনোনিবেশ করতে চাইছে বামেরা। এই উপলক্ষ্যে সিপিএমের ফেসবুক পোস্ট নজর কেড়েছে। মাঠে ময়দানের অধিকার আদায়ের লড়াইকে ছড়িয়ে দিন ডিজিটাল মাধ্যমেও, এই স্লোগানের মাধ্যমে ডিজিটাল স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগের প্রচার অভিযান শুরু করেছে সিপিএম।

Comments
Loading...