ব্রিগেড সমাবেশ এগিয়ে আনার ভাবনা বাম-কংগ্রেসের, ভোট এগোনোর প্রেক্ষিতে সভা হতে পারে ফেব্রুয়ারির প্রথম বা দ্বিতীয় রবিবার

ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি ভোট ঘোষণা হয়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন CPM ও Congress নেতারা

বিধানসভা ভোটে বাম-কংগ্রেস জোট করে লড়বে। এখন চলছে আসন বণ্টন নিয়ে আলোচনা। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে তা চূড়ান্ত করে ফেলতে চাইছেন দুই শিবিরের নেতারা। এই প্রেক্ষিতে এবার চর্চায় উঠে এলো যৌথ ব্রিগেড সমাবেশ। 

সূত্রের খবর, ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি ভোট ঘোষণা হয়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন বাম ও কংগ্রেস নেতারা। তাই ব্রিগেড এগিয়ে আনা নিয়ে চিন্তাভাবনা শুরু হয়েছে বাম শিবিরে। 

প্রতি বছরই শীতের শেষে ব্রিগেড সমাবেশ করে সিপিএম। এবারও তেমনই পরিকল্পনা ছিল আলিমুদ্দিনের। প্রাথমিক ভাবে ফেব্রুয়ারির শেষ রবিবার তথা মাসের শেষ দিন বাম-কংগ্রেসের ব্রিগেড সমাবেশ হবে বলে ঠিক হয়েছিল। কিন্তু সেই পরিকল্পনায় বাদ সেধেছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চের রাজ্য সফর। আলিমুদ্দিন মনে করছে, ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি ভোট ঘোষণা হয়ে যেতে পারে। একবার ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা হয়ে গেলে প্রার্থীর প্রচার ছেড়ে ব্রিগেডের দিকে মনোনিবেশ করা সমস্যার। তাই বিকল্প হিসেবে ব্রিগেড সমাবেশ এগিয়ে নিয়ে আসার কথা ভাবছেন নেতারা। এই বিষয়ে প্রাথমিক কথা হয়েছে সিপিএম-কংগ্রেসের। সূত্রের খবর, ফেব্রুয়ারির প্রথম বা দ্বিতীয় সপ্তাহের রবিবার ব্রিগেডে সভা ডাকা হতে পারে। সেক্ষেত্রে ভোট ঘোষণা হলেই ঝাঁপিয়ে পড়তে পারবেন নেতা-কর্মীরা। ব্রিগেডের জন্য আলাদা করে সময় দিতে হবে না। 

সাধারণত মার্চ মাসের শুরুতে ভোট ঘোষণা করে কমিশন। কিন্তু এবার এপ্রিল মাসের মধ্যে ভোট পর্ব চুকিয়ে ফেলতে চায় নির্বাচন কমিশন। সেক্ষেত্রে ভোট এগিয়ে আসছে বলে ধরে নেওয়া যায়। আলিমুদ্দিন মনে করছে মার্চের বদলে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি ভোট ঘোষণা হয়ে যাবে। তাই ভোট ঘোষণার আগেই ব্রিগেড সেরে ফেলতে চান সিপিএম-কংগ্রেস নেতৃত্ব।

সিপিএমের এক নেতা জানাচ্ছেন, ব্রিগেডের মতো বিশাল সমাবেশ সফল করতে গেলে কর্মীদের কোমর বেঁধে নামতে হয়। সভা-সমিতির পাশাপাশি থাকে আরও অনেক সাংগাঠনিক কাজ। একবার ভোট ঘোষণা হয়ে গেলে নেতা কর্মীরা ব্যস্ত হয়ে পড়বেন প্রচারে। তাই সেই সময় ব্রিগেড আয়োজন হলে সমস্যায় পড়তে পারেন নেতা-কর্মীরা। সেই কথা মাথায় রেখে ফেব্রুয়ারির প্রথম বা দ্বিতীয় সপ্তাহে ব্রিগেড এগিয়ে আনার কথা ভাবা হচ্ছে। সব ঠিকঠাক চললে ফেব্রুয়ারির প্রথম রবিবার অর্থাৎ ৭ তারিখ বা দ্বিতীয় রবিবার ১৪ তারিখ ব্রিগেডে যৌথ সভা করতে পারে বাম-কংগ্রেস। 

Comments
Loading...