বর্ধমানে নিরুপম সেনের কেন্দ্রে CPM প্রার্থী নিহত প্রদীপ তা’র মেয়ে পৃথা

দীর্ঘদিন বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছেন নিরুপম সেন

একদা লালদুর্গ বর্ধমানে এবার চমক দিতে চলেছে CPM। আর চমক অপেক্ষা করছে একদা রাজ্যের শিল্পমন্ত্রী নিরুপম সেনের কেন্দ্র, বর্ধমান দক্ষিণে। সূত্রের খবর, নিরুপম সেনের কেন্দ্রে এবার প্রার্থী হতে চলেছেন নিহত প্রাক্তন সিপিএম বিধায়ক প্রদীপ তা’র মেয়ে পৃথা।
প্রার্থী তালিকায় প্রাধান্য পাবেন ৪০ বছরের কম বয়সীরা। আলিমুদ্দিনের এই পরিকল্পনার কথা আগেই জানা গিয়েছিল। সেই অনুযায়ী শতরূপ ঘোষ, ঐশী ঘোষ, দিপ্সীতা ধর, দেবজ্যোতি দাসেরা প্রার্থী হচ্ছেন। এবার জানা গেল, বর্ধমানে বাম ভোট ফেরাতে সেই তারুণ্যেই ভরসা রাখতে চলেছে আলিমুদ্দিন।
দীর্ঘদিন বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছেন নিরুপম সেন। কিন্তু ২০১১ সালে পরিবর্তনের হাওয়ায় হেরে যান তিনি। সেই থেকে এই কেন্দ্র আর কখনওই বামেদের হাতে আসেনি।
রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, ২০১৪ বা ২০১৬ সালের ভোটে সিপিএমের ভোট কমেছে। কিন্তু সবচেয়ে বড়ো ধাক্কা দিয়ে গেছে ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচন। যখন একেবারে তলানিতে ঠেকে সিপিএমের ভোট। ২০২১ সালে সেই রক্তক্ষরণ আটকাতে মরিয়া সিপিএম প্রার্থী করতে চলেছে প্রয়াত সিপিএম বিধায়ক প্রদীপ তা’র মেয়ে পৃথাকে।
বর্ধমান শহরে সিপিএম নেতা প্রদীপ তার জনপ্রিয়তা ছিল বিপুল। এই অবস্থায় প্রদীপ তা’র মেয়ে পৃথা বামেদের সেরা বাজি হতে পারেন বলে মনে করছেন তাঁরা।
প্রদীপ তা’র মেয়ে পৃথার জন্ম ওই বর্ধমান শহরেই। বর্তমানে পার্টির কাজে কলকাতায় থাকতে হয় তাঁকে। এবার প্রার্থী তালিকায় নাম এলে পৃথা ফিরবেন নিজের ঘরে, বর্ধমান দক্ষিণে।
আলিমুদ্দিনের নেতারা মনে করছেন, প্রদীপ তা’র জনপ্রিয়তার পাশাপাশি পৃথার মতো কম বয়সী মেয়েদের রাজনীতিতে এগিয়ে আসার সুফল ভোটবাক্সে দেখা যাবেই।
২০১২ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি বর্ধমান শহরের উপকণ্ঠে দেওয়ানদিঘিতে পার্টি অফিসের কাছেই পিটিয়ে হত্যা করা হয় প্রাক্তন সিপিএম বিধায়ক প্রদীপ তা এবং জেলা কমিটি সদস্য কমল গায়েনকে। এলাকার বাম সমর্থকেরা বলেন, এই ঘটনার পর থেকেই আস্তে আস্তে কমতে শুরু করে লাল ঝাণ্ডার প্রভাব। ২০১৯ সালে তা তলানিতে ঠেকে। এবার চ্যালেঞ্জ ভোট ফেরানোর। আর সেই চ্যালেঞ্জে আলিমুদ্দিনের হাতিয়ার পৃথা তা। কিন্তু প্রশ্ন হল, বর্ধমানে লালের হাল ফিরবে কি?

Comments
Loading...