নেটওয়ার্ক না থাকায় বায়োমেট্রিক পদ্ধতি বিকল, তিন মাস রেশন না পেয়ে ঝাড়খণ্ডে অনাহারে মৃত্যু এই ব্যক্তির

রেশন পাননি তিন মাস, অনাহারে মারা গেলেন ৬৫ বছরের দিনমজুর রামচরণ মুণ্ডা। ঘটনাটি ঘটেছে ঝাড়খণ্ডের লাটেহার জেলায়।
সূত্রের খবর, ঝাড়খণ্ড রাজ্যের এই লাটেহার অঞ্চলে দীর্ঘ তিন মাস ধরে নেটওয়ার্কের সমস্যার জন্য বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেশন ডেলিভারি দেওয়া যায়নি। বারবার রেশন আনতে গিয়ে ফিরে আসতে হয় ৬৫ বছরের রামচরণ মুণ্ডাকে। বৃহস্পতিবার অনাহারে অসুস্থ হয়ে মারা যান পেশায় দিনমজুর রামচরণ মুণ্ডা। মৃতের কন্যার অভিযোগ, তিন মাস ধরে তাঁরা কোনও রেশন পাননি, শেষ চারদিন ধরে কোনও খাবার জোটেনি তাঁদের। না খেতে পেয়ে অসুস্থ হয়ে মারা গিয়েছেন তাঁর বাবা, দাবি রামচরণের কন্যার।
স্থানীয় গ্রামবাসীদেরও অভিযোগ, গত তিনদিন ধরে রামচরণ মুণ্ডার বাড়িতে হাঁড়ি চড়েনি। অভুক্ত অবস্থায় মারা গিয়েছেন রামচরণ মুণ্ডা। পাশিপাশি তাঁরা এও জানান, গত তিন মাস ধরে এলাকার কেউই রেশন পরিষেবা পাচ্ছেন না। বারবার জেলা প্রশাসনকে জানানো হলেও কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি বলে অভিযোগ গ্রামবাসীদের। আফসানা খাতুন নামে কেন্দ্রীয় সরকারের মনরেগা প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা এক কর্মী সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে থাকতেন দিনমজুর রামচরণ মুণ্ডা। খুব অভাবের মধ্যেই দিন গুজরান হোত তাঁদের।
যদিও জেলা প্রশাসন এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে জানিয়েছে, অনাহারের কারণে নয়, মদে তীব্র আসক্তির কারণেই মৃত্যু হয়েছে ওই বৃদ্ধের। কয়েকদিন আগেই রামচরণ মুণ্ডা হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছিলেন, দাবি সাব ডিভিশনাল অফিসার সুধীর দাসের।

Comments
Loading...