স্থানীয়দের সঙ্গে নিয়েই দেউচা-পাঁচামি প্রকল্প, লক্ষাধিক চাকরি, ১০০ বছর বাংলায় কয়লার অভাব হবে না, বললেন মুখ্যমন্ত্রী

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম কয়লা ব্লক হতে চলেছে দেউচা-পাঁচামি। শেষ হয়েছে সেই প্রকল্পের প্রাথমিক কাজ। কেবলমাত্র একটি মউ সাক্ষরিত হলেই চূড়ান্ত হয়ে যাবে প্রকল্প। বুধবার নবান্নে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। বললেন, লক্ষাধিক চাকরির পাশাপাশি এই কোল ব্লক কাজ শুরু করলে আগামী ১০০ বছর বাংলায় কয়লার কোনও অভাব হবে না। পাশাপাশি ভারতেও কয়লার সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।

দেউচা-পাঁচামি কোল ব্লক তৈরিতে সময় লাগবে ৫ বছর। কয়লা খনির পাশাপাশি এখানে বাণিজ্যিকভাবে পাথর উত্তোলনেরও কাজ করা হবে বলে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে কোল ব্লকের কাজ শুরু হওয়ার আগে সংশ্লিষ্ট এলাকায় বসবাসকারী মানুষের ভরসা জেতার কথা বলেন মমতা। এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে নিয়েই সমস্ত কাজ হবে। তাঁদের কনফিডেন্সে না নেওয়া পর্যন্ত প্রকল্পের কাজ শুরু করা হবে না বলে জানান মমতা। তাঁর কথায়, কেউ দুশ্চিন্তা করবেন না। স্টেক হোল্ডারদের কনফিডেন্সে না নিয়ে কোনওদিন কাজ করিনি। এটাই আমার নীতি। মুখ্যমন্ত্রী জানান, মোট ১১ টি মৌজার ১১,২২২.৫ একর জমি জুড়ে তৈরি হবে দুনিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম কোল ব্লক। এই এলাকায় বসবাসকারী মানুষের ৪০ শতাংশই আদিবাসী সম্প্রদায়ের। প্রকল্পের কাজে যেন স্থানীয়রাই সর্বোচ্চ গুরুত্ব পান তা রাজ্য সরকার নিশ্চিত করবে বলেও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পরিবেশ সংক্রান্ত সমস্ত নিয়ম মেনে প্রকল্প রূপায়নে এগোবে সরকার। বিশেষ নজর রাখা হবে দূষণ দূরীকরণে, জানান মুখ্যমন্ত্রী। এই ধরনের প্রকল্পের জন্য কেন্দ্রের কাছে টাকা জমা রাখতে হয় বন্ড হিসেবে। সংশ্লিষ্ট দফতরকে এই কাজে তহবিল তৈরির নির্দেশও দিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, দেউচা-পাঁচামি রাজ্যের মাথায় সোনার মুকুটের মতো। বিদেশ থেকে বেশি দাম দিয়ে ভারতের কয়লা কেনার দিন শেষ। এবার দেউচা-পাঁচামি থেকেই দেশের কয়লা সমস্যা সমাধান হবে।

Comments
Loading...