অভিষেকের কেন্দ্রের তৃণমূল বিধায়ক শোভনের বাড়িতে! বিজেপিতে যাচ্ছেন?

টিকিট পাবেন না বুঝেই কি শোভন-সাক্ষাৎ?

লক্ষ্মীরতন শুক্ল যেদিন মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দিলেন সেদিন রাতেই অভিষেক ব্যানার্জির লোকসভার অন্তর্গত ডায়মন্ড হারবার বিধানসভার তৃণমূলের এমএলএ দীপক হালদারকে দেখা গেল গোলপার্কে। জানা যায় অধুনা বিজেপি নেতা শোভন চ্যাটার্জির সঙ্গে দেখা করে ঘণ্টাদুয়েক সময় কাটান দীপক হালদার। তারপরই জল্পনা মাথাচাড়া দেয় তাহলে কি ডায়মন্ড হারবারের বিধায়ক বিজেপিতে যাচ্ছেন? 

দীপক হালদার। বছর পাঁচেক আগে ফকিরচাঁদ কলেজে গোলমালের ঘটনায় দল থেকে সাসপেন্ড হয়েছিলেন একদা মুকুল রায় ঘনিষ্ঠ এই তৃণমূল বিধায়ক। এছাড়াও বারবার তাঁর নাম জড়িয়েছে বিতর্কে। স্বজনপোষণ থেকে শুরু করে ডায়মন্ড হারবার জাহাজ বন্দরের দখলদারি, বারবার বিতর্কের কেন্দ্রে উঠে এসেছেন দীপক হালদার। দলের মধ্যে তাঁর ভাবমূর্তি নিয়ে প্রশ্ন আছে।

বিধানসভা ভোটের আগে যখন দলবদলের মরসুম চলছে পুরোদমে সেই আবহে দীপক হালদারের শোভনের বাড়ি যাওয়া কীসের ইঙ্গিত? 

দীপক হালদার যদিও জানিয়েছেন এই সাক্ষাৎ নেহাতই সৌজন্যমূলক। কিন্তু তাতে ধন্দ কাটছে না। 

তৃণমূলে থাকাকালীন শোভন চ্যাটার্জি ছিলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার দায়িত্বে। তাই স্বাভাবিকভাবেই দীপক হালদারের সঙ্গে শোভনের যোগাযোগ আজকের নয়। কিন্তু দলবদলের এই ভরা মরসুমে তাঁর শোভনের বাড়ি যাওয়া নিয়ে প্রশ্ন ওঠা থামছে না। 

বিজেপিতে যাওয়ার পর শোভনকে কলকাতা জোনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখনও বিজেপিতে আনুষ্ঠানিক ভাবে পথে নামা হয়ে ওঠেনি শোভনের। তা বলে ঘরে হাত গুটিয়ে বসে নেই প্রাক্তন মেয়র। সূত্রের খবর, ঘরে বসে পুরনো যোগাযোগ কাজে লাগিয়ে নতুন সংগঠনকে মজবুত করার কাজ চালাচ্ছেন তিনি। সেই সূত্রেই কি দীপক হালদারের গোলপার্ক যাত্রা? 

দীপক হালদারের শোভন-সাক্ষাৎ নিয়ে অবশ্য একটি অন্য মতও আছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় দীপক হালদার সম্পর্কে বিস্তর অভিযোগ। ২০২১ সালের ভোটে ডায়মন্ড হারবার থেকে তিনি ফের তৃণমূলের টিকিট পাবেন, এমন নিশ্চয়তা নেই বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা। কারণ যুব তৃণমূল সভাপতি তথা ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি নিজে দীপক হালদারকে নিয়ে সন্তুষ্ট নন বলে দাবি। তাহলে কি টিকিট পাওয়া নিয়ে দোটানার জেরেই তৃণমূল বিধায়ক ছুটলেন বিজেপি নেতার বাড়ি?

Comments
Loading...