দিলীপ ঘোষ: ‘ক্ষমতায় এলে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার তদন্ত করব’! অমিত শাহের মিছিলের পর মূর্তি ভাঙার প্রসঙ্গ তুললেন বিজেপি সভাপতি

গত বছর ১৪ মে। কলকাতায় অমিত শাহের রোড শো, আর তা ঘিরে বেনজির আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি। যার পরিসমাপ্তি বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার মধ্যে দিয়ে। এবার বিধানসভা ভোটের প্রচার শুরুর লগ্নে বিদ্যাসাগর ইস্যুকে নতুন করে ভাসিয়ে দিলেন বঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বিদ্যাসাগরের জন্মদিবসে দিলীপ ঘোষের ট্যুইট, বিজেপি ক্ষমতায় এলে মূর্তি ভাঙার ঘটনার তদন্ত করা হবে।

গত বছর ১৪ মে অমিত শাহের রোড শো যাচ্ছিল কলেজ স্ট্রিট ধরে হেদুয়ার দিকে। কিন্তু সূর্য সেন স্ট্রিট ক্রসিং পেরোতেই কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে বিজেপি ও বিরোধী ছাত্রদের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়ে যায়। পুলিশ দু’পক্ষকে আলাদা করে। অমিত শাহের মিছিল এগিয়ে যায়। কলেজ স্ট্রিটজুড়েই কোথাও এসএফআই, কোথাও টিএমসিপি, আবার কোথাও অন্য কোনও সংগঠন, দফায় দফায় বিরোধী ছাত্রদের সঙ্গে গোলমাল বাঁধে বিজেপির। একটা সময় দেখা যায় বিদ্যাসাগর কলেজে ঢোকার মুখে রাখা বিদ্যাসাগরের মূর্তি কারা যেন আছড়ে ভেঙে ফেলেছে। পরিস্থিতি মুহূর্তে আরও অগ্নিগর্ভ চেহারা নেয়।

অভিযোগ ওঠে বিজেপির বহিরাগত গুন্ডাদের হাতেই ভেঙেছে মূর্তি। বিজেপি পাল্টা অভিযোগ করে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বাম ও কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠনও অভিযোগ করে বিজেপির বিরুদ্ধে। এই পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, বাংলায় ক্ষমতায় এসে আরও বড়ো বিদ্যাসাগরের মূর্তি বানাবেন তাঁরা। অন্যদিকে, বিজেপিরই একটি জাতীয় সমাবেশের দিন একই জায়গায় বিদ্যাসাগরের মূর্তি নতুন করে প্রতিষ্ঠা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। শুধু তাই নয়, মুখ্যমন্ত্রী বিজেপিকে বাংলা বিরোধী বলেও আখ্যা দিয়েছিলেন।

এই প্রেক্ষিতে বিধানসভা ভোটের মুখে বাঙালির ভাবাবেগ টানতে বিদ্যাসাগরকে ভাসিয়ে দিলেন দিলীপ ঘোষ। ঘোষণা করলেন, বিজেপি ক্ষমতায় এলে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনার তদন্ত করবেন তাঁরা। যদিও বিজেপি সভাপতির বক্তব্যকে গুরুত্ব দিতে রাজি নয় তৃণমূল। তৃণমূল শিবিরের বক্তব্য, গোটা রাজ্যের মানুষ দেখেছেন, কারা মূর্তি ভেঙেছে। তাছাড়া বিজেপির ক্ষমতায় আসার কোনও প্রশ্নও নেই।
রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে বিজেপি বুঝতে পারছে বাঙালির জীবনে বিদ্যাসাগর কতখানি জায়গা জুড়ে আছেন। সেই মূর্তি ভাঙার ঘটনায় বিজেপির দিকে আঙুল উঠলে তা বাংলায় দলের পক্ষে ঘোর অস্বস্তির। কৌশলে সেই অস্বস্তির পাল্লা উল্টো দিকে ঠেলে দিতেই তদন্তের কথা বলে নতুন করে বিদ্যাসাগরের ভাবাবেগ পেতে চাইছেন বঙ্গ বিজেপির প্রধান।

Comments
Loading...