১ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় পূর্ব মেদিনীপুরের ৯ কেন্দ্রে ভোট, ২০১৬, ২০১৯ সালে কী ফল ছিল?

পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় মোট ১৬ টি বিধানসভা আসন। এরমধ্যে প্রথম দফায় ভোট হয়েছে ৭ আসনে। দ্বিতীয় দফায় ৯ কেন্দ্রে ভোট।
এই ৯ টি কেন্দ্র হল, ময়না, নন্দীগ্রাম, তমলুক, নন্দকুমার, মহিষাদল, চণ্ডীপুর, পাঁশকুড়া পূর্ব, পাঁশকুড়া পশ্চিম এবং হলদিয়া।

দেখে নিন ২০১৬ ও ২০১৯ সালে কী ছিল ফল, এবার কাদের প্রার্থী কারা?

ময়না বিধানসভায় ২০১৬ সালে জয়ী হন সংগ্রাম দোলাই। ১ লক্ষের বেশি ভোটে জয়ী হন তিনি। ২০১৯ লোকসভার পর এই কেন্দ্রে ১২ হাজারের বেশি ভোটে লিড আছে তৃণমূলের।
ময়না বিধানসভায় এবারও তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী সংগ্রামকুমার দোলাই। বিজেপি প্রার্থী প্রাক্তন ক্রিকেটার অশোক দিন্দা। অন্যদিকে, কংগ্রেসের প্রার্থী মানিক ভৌমিক।

নন্দীগ্রাম বিধানসভা আসনে ২০১৬ সালে তৃণমূলের প্রতীকে জয়লাভ করেন শুভেন্দু অধিকারী। বিধায়ক পদে ইস্তফা দিয়ে ২০২১ ভোটের আগে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। ২০১৬ সালে নন্দীগ্রামে শুভেন্দু ৮১,৪০৯ ভোটে হারান নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিআইয়ের আব্দুল কবির শেখকে। ২০১৯ সালে এই কেন্দ্রে ৬৮,৩৯১ ভোটে এগিয়ে তৃণমূল।

এই কেন্দ্রে এবার তৃণমূল প্রার্থী মমতা ব্যানার্জি, বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী, সিপিএম প্রার্থী মীনাক্ষী মুখার্জি।

তমলুক বিধানসভায় ২০১৬ সালে তৃণমূল প্রার্থী নির্বেদ রায়কে ৯৪,৯১২ ভোটে হারিয়ে জয়ী হন সিপিআই প্রার্থী অশোক দিন্দা। ২০১৯ সালের লোকসভায় তৃণমূল এগিয়ে ৬৫৪১ ভোটে।
প্রসঙ্গত ২০১৬ সালে নির্বেদ রায়ের হারের পিছনে সরাসরি শুভেন্দুর দিকে আঙ্গুল তুলেছিলেন মমতা ব্যানার্জি।

তমলুকে ২০২১ সালে তৃণমূলের প্রার্থী সৌমেন মহাপাত্র। এই আসনে লড়ছেন বিজেপির প্রার্থী হরেকৃষ্ণ বেরা। সিপিএম প্রার্থী গৌতম পণ্ডা।

নন্দকুমার বিধানসভায় ২০১৬ সালে জয় পান তৃণমূলের সুকুমার দে। ২০১৯ সালে এই কেন্দ্রে প্রায় ১৫ হাজার ভোটে এগিয়ে তৃণমূল।
এই বিধানসভায় এবার তৃণমূল প্রার্থী সুকুমার দে। এই আসনে বিজেপি প্রার্থী নীলাঞ্জন অধিকারী। অন্যদিকে, সংযুক্ত মোর্চা সমর্থিত সিপিএম প্রার্থী করুণাশংকর ভৌমিক।

২০১৬ সালে মহিষাদল আসনে জেতেন তৃণমূলের সুদর্শন ঘোষদস্তিদার। ২০১৯ সালের লোকসভায় এই কেন্দ্রে ১৬ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে তৃণমূল।

এবার তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী তিলক চক্রবর্তী। বিজেপি প্রার্থী বিশ্বনাথ ব্যানার্জি। সংযুক্ত মোর্চা সমর্থিত আইএসএফের বিক্রম চ্যাটার্জি লড়ছেন।

চন্ডিপুর বিধানসভায় ২০১৬ সালে জিতেছিলেন তৃণমূলের অমিয়কান্তি ভট্টাচার্য (৯৫,৯৮২)। দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন সিপিএমের মঙ্গলচাঁদ প্রধান (৮৬,৩২৮)। ২০১৯ সালে চন্ডিপুরে ১৫ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে তৃণমূল।
এই বিধানসভায় এবার তৃণমূল প্রার্থী অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী। এই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বিজেপি প্রার্থী পুলককান্তি গুড়িয়া। অন্যদিকে, রয়েছেন সিপিএমের আশিস গুছাইত।

২০১৬ বিধানসভায় পাঁশকুড়া পূর্ব কেন্দ্রে জয়লাভ করেন সিপিএমের ইব্রাহিম আলি (৮৫,৩৩৪)। দ্বিতীয় স্থানে তৃণমূলের বিপ্লব রায়চৌধুরী (৮০,৫৬৭)। ২০১৯ লোকসভায় এই কেন্দ্রে ৭ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে তৃণমূল।
এই বিধানসভায় এবারের তৃণমূল প্রার্থী বিপ্লব রায়চৌধুরী। এই আসনে বিজেপির প্রার্থী দেবব্রত পট্টনায়ক। সিপিএম প্রার্থী শেখ ইব্রাহিম আলি।

পাঁশকুড়া পশ্চিম বিধানসভায় ২০১৬ সালে জেতেন তৃণমূলের ফিরোজা বিবি। ২০১৯ সালে এই কেন্দ্রে ৩ হাজার ভোটে এগিয়ে বিজেপি।
এই বিধানসভায় এবার তৃণমূল প্রার্থী সেই ফিরোজা বিবি। এই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বিজেপি প্রার্থী সিন্টু সেনাপতি। অন্যদিকে, সিপিএম প্রার্থী চিত্তদাস ঠাকুর।

হলদিয়া বিধানসভায় ২০১৬ সালে জিতেছিলেন সিপিএমের তাপসী মণ্ডল। এবার ভোটের আগে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। ২০১৯ সালে এই কেন্দ্রে ৬৩,৮২১ ভোটে এগিয়ে তৃণমূল।
এই বিধানসভায় তৃণমূল প্রার্থী স্বপন নস্কর। এই আসনে বিজেপি প্রার্থী তাপসী মণ্ডল। সিপিএমের মণিকা কর পাইক।

Comments
Loading...