ভিড় নেই! মাঠ ভরাতে ১ ঘণ্টা অপেক্ষা যোগীর, বেলদার ফাঁকা মাঠের ছবি ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

দেরিতে সভা শুরু হলেও মাঠ ভরেনি

অমিত শাহ, জে পি নাড্ডার পর এবার উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথও ফাঁকা মাঠে সভা করে গেলেন। মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুরের নারায়ণগড় বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী রমাপ্রসাদ গিরির হয়ে প্রচার করতে বেলদায় সভা করতে এসেছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। লোক না হওয়ায় তাঁকে ঘণ্টা খানেকের বেশি অপেক্ষা করতে হয়। দেরিতে সভা শুরু হলেও মাঠ ভরেনি। 

জানা গিয়েছে, বেলদার সভার জন্য নির্ধারিত সময়েই যোগী আদিত্যনাথ পৌঁছে গেছিলেন। কিন্তু সেই সময় মাঠ প্রায় পুরো ফাঁকা। বাধ্য হয়ে মঞ্চের ঠিক পিছনে তাঁবুতে বসে ছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। এক ঘণ্টার বেশি অপেক্ষা করার পর বলতে ওঠেন যোগী। সেই সময়ও মাঠ ভরেনি। এই ঘটনা তুলে ধরে সরাসরি আদিত্যনাথকে খোঁচা দিয়েছেন অভিষেক ব্যানার্জি। 

বিজেপি সূত্রের খবর, বছরের এই সময় গ্রাম বাংলায় আলু তোলার কাজে সবাই ব্যস্ত থাকেন। তাই দিনের বেলার সভায় লোক আসছেন না। তাঁদের দাবি, সন্ধের সভায় জায়গা দেওয়া যাচ্ছে না। তাহলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সভায় লোক হচ্ছে কী করে? বিজেপি নেতাদের দাবি, মমতার সভাতেও লোক হচ্ছে না। 

তবে শুধু আদিত্যনাথই না, বাংলায় প্রচারে এসে ফাঁকা মাঠ দেখতে হয়েছে রাজনাথ সিংহকেও। মঙ্গলবার রাজনাথের জোড়া সভা ছিল। সবং ও দাসপুর বিধানসভার বিজেপি প্রার্থীদের প্রচারে এসে তাঁকে ফাঁকা মাঠে সভা করতে হয়। দুটি সভাতেই রাজনাথ সিংহের সঙ্গে ছিলেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। 

সভা থেকে রাজনাথ সিংহ অভিযোগ করেন, মমতা ব্যানার্জির পুলিশ বিরোধীদের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড করতে দেয় না। বিজেপির অভিযোগ, সভায় আসার পথে বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূলের লোকজন বাস আটকে দিয়েছে। তাই বহু বাস, গাড়ি সভায় হাজির হতে পারেনি।  

Comments
Loading...