বলিউডের মর্যাদাহানিকর খবর সম্প্রচার করতে Republic TV ও Times Now কে নিষেধ করল দিল্লি হাইকোর্ট, টোন ডাউনের নির্দেশ

নিশ্চিত করুন, বলিউড বা তার কোনও সদস্যকে নিয়ে কোনওরকম মর্যাদাহানিকর খবর যেন সম্প্রচারিত না হয়। গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ সাধারণ মানুষের মধ্যে ভীতির সঞ্চার করছে। রিপাবলিক টিভি ও টাইমস নাউ চ্যানেলকে নির্দেশ দিল্লি হাইকোর্টের। বলিউডের ৩৮ টি প্রযোজনা সংস্থার দায়ের করা মামলার প্রেক্ষিতে দুই চ্যানেলকে হলফনামা জমারও নির্দেশ দিয়েছে আদালত। পরবর্তী শুনানি ১৪ ডিসেম্বর।

সুশান্ত সিংহের মৃত্যুতে ড্রাগ অ্যাঙ্গেল প্রতিষ্ঠা করতে বলিউডকে টার্গেট করা হচ্ছে। অর্ণব গোস্বামীর রিপাবলিক টিভি ও টাইমস গোষ্ঠীর টাইমস নাউ চ্যানেল উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বলিউডের চরিত্র হননের চেষ্টা করছে। আদালত এই দুই নিউজ চ্যানেলকে বিষাক্ত ও মিথ্যে খবর সম্প্রচার বন্ধ করার আদেশ দিক। এই আবেদন নিয়ে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল শাহরুখ-সালমান-করণ জোহর-ফারহান আখতার সহ মুম্বই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির প্রায় সমস্ত নামজাদা প্রোডাকশন হাউস।

সেই মামলার শুনানিতে দিল্লি হাইকোর্টের পর্যবেক্ষণ, নিউজ চ্যানেলের একাংশ খবর কম, মতামত বেশি দেখানোর পথ নিয়েছে। যা নিউজ চ্যানেলের সংগঠনের তৈরি করা গাইডলাইনের পরিপন্থী। এই পরিস্হিতিত নিউজ চ্যানেলকে টোন ডাউন করার পরামর্শ দিল্লি হাইকোর্টের।

আদালত বলে, বিভিন্ন ব্যক্তিত্বকে নিয়ে এমনভাবে খবর দেখানো হচ্ছে, যা সাধারণ মানুষের ভয় ঢুকিয়ে দিচ্ছে। কেউই নিজের ব্যক্তিগত জীবনকে বাইরে হাট করে খুলে দিতে চায় না। প্রিন্সেস ডায়নার উদাহরণ দিয়ে বিচারপতি রাজীব শাখধের বলেন, দূরদর্শনের সময়টাই ভালো ছিল। এখন তো শুনতে পাই নিউজ চ্যানেলের ডিবেট শোয়ে উত্তেজিত হয়ে কেউ কেউ অসংসদীয় শব্দ পর্যন্ত প্রয়োগ করে ফেলেন! তারপর দুই চ্যানেলের আইনজীবীকে লক্ষ্য করে বলেন, এখনও ভুল না শোধরালে অবস্থা বদলাবে না।

আদালত রিপাবলিক টিভি ও টাইমস নাউ চ্যানেলকে হলফনামা আকারে অভিযোগের প্রেক্ষিতে নিজের বক্তব্য জানানোর নির্দেশ দিয়েছে। তারপরই শুনানি মুলতুবি করে দেন বিচারপতি। ১৪ ডিসেম্বর মামলার ফের শুনানি।

Comments
Loading...