ভিক্টোরিয়ায় নেতাজির ‘নকল’ চিঠি!  সুগত বসুর অভিযোগে সরিয়ে নিল কর্তৃপক্ষ  

ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে ‘নির্ভীক সুভাষ’ নামের একটি স্থায়ী গ্যালারিতে এত দিন নেতাজির হাতে লেখা বলে একটি চিঠি রাখা ছিল। কিন্তু অভিযোগ সেটি নেতাজির হাতে লেখা চিঠি নয়। নেতাজির পরিবারের সদস্য এবং ইতিহাসবিদ সুগত বসুর অভিযোগের ভিত্তিতে ভুয়ো  চিঠি সরিয়ে নিল কর্তৃপক্ষ। 

গত ২৩ জানুয়ারি নেতাজির জন্মজয়ন্তীতে ভিক্টোরিয়ায় এসে ‘নির্ভীক সুভাষ’ নামে একটি গ্যালারির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ওই গ্যালারিতে নেতাজির ব্যবহৃত বহু জিনিস পত্রের সঙ্গে তাঁর কিছু চিঠি ও কাগজপত্র প্রদর্শিত হচ্ছিল। নকল ওই চিঠিটির  বিষয়ে বলা হয়েছিল, এটি ১৯২১ সালে ২২ এপ্রিল সিভিল সার্ভিস থেকে ইস্তফা দিয়ে নেতাজি লিখেছিলেন। তবে নেতাজি রিসার্চ ব্যুরোর দাবি অনুযায়ী ওই চিঠিতে  হাতের লেখা নেতাজির নয়, এমনকি চিঠিতে বানানও ভুল রয়েছে।  

নেতাজি পরিবার সূত্রে জানা যাচ্ছে, আসল চিঠিটি ১৯৭১ সালে নেতাজির ভ্রাতুষ্পুত্র শিশিরকুমার বসু এবং কৃষ্ণা বসু লন্ডন থেকে সংগ্রহ করে এনেছিলেন।  আসল চিঠিটি এলগিন রোডে নেতাজি ভবনের মিউজিয়ামে রাখা আছে।  

[আরও পড়ুন- কালা কৃষি আইন প্রত্যাহার করতে হবে, কৃষকদের পাশে আছি, মাটি উৎসবে বললেন মুখ্যমন্ত্রী]  

সুগত বসুর দাবি, ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের ওই বিতর্কিত চিঠির উৎস নেতাজি রিসার্চ ব্যুরোর বলে দাবি করা হলেও, তাঁদের কাছ থেকে ওই চিঠি নেওয়া হয়নি। সুগত বসু কর্তৃপক্ষকে তাঁর অভিযোগ জানিয়েছিলেন, সেই মর্মেই এদিন তাঁকে ওই চিঠি সরিয়ে নেওয়ার কথা লিখিত ভাবে জানিয়েছে ভিক্টোরিয়া কর্তৃপক্ষ। 

পাশাপাশি সুগত বসুর আরও দাবি মহম্মদ জিয়াউদ্দিনের ছদ্মবেশে নেতাজির যে ছবিটি ভিক্টোরিয়াতে দেখানো হচ্ছে সেটিও ভুল ছবি। যদিও এ বিষয়ে ভিক্টোরিয়া কর্তৃপক্ষ এখনও কিছু জানায় নি।                              

Comments
Loading...