কাশ্মীরে জওয়ানদের মৃত্যুর পর ‘হেসেছেন’ প্রিয়াঙ্কা, ট্যুইটারে ভুয়ো ভিডিও শেয়ার করাকে কেন্দ্র করে বিতর্ক

পুলওয়ামায় ভয়াবহ জঙ্গি হানার খবর শুনে কি সত্যিই হেসে ফেলেছিলেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী? প্রিয়াঙ্কার হাসির একটি ১১ সেকেন্ডের ভিডিও ট্যুইট করেছেন জনৈক অঙ্কুর সিংহ। অঙ্কুর সিংহ নামের ব্যক্তি ট্যুইটে লিখেছেন, ‘সাংবাদিক বৈঠকে হাসছেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী!’ পোস্টে প্রিয়াঙ্কাকে তুলনা করা হয়েছে ‘শকুনে’র সঙ্গে, যারা মৃতদেহ খাওয়ার আশায় আকাশে চক্কর কেটে বেড়ায়। এই পোস্ট ভাইরাল হতেই দেশজুড়ে বিতর্কের ঝড় ওঠে। প্রশ্ন তোলা হয় প্রিয়ঙ্কার দেশপ্রেম নিয়ে। জঙ্গি হামলায় এত জওয়ানের মৃত্যু সংবাদ শুনে কীভাবে প্রিয়াঙ্কা হাসতে পারেন? কিন্তু সত্যিই কি প্রিয়ঙ্কা গান্ধী এখবর শুনে হেসে উঠেছিলেন?
দুটি সর্বভারতীয় নিউজ পোর্টাল ১১ সেকেন্ডের ক্লিপটি পরীক্ষা করে জানায়, অঙ্কুর সিংহের দাবি নির্জলা মিথ্যে। প্রিয়াঙ্কা জওয়ানদের মৃত্যু মিছিলের খবর শুনে মোটেই হেসে ওঠেননি, বরং তড়িঘড়ি পূর্ব নির্ধারিত সাংবাদিক বৈঠকই বাতিল করে দেন। প্রিয়াঙ্কা সাংবাদিকদের বলেন, ‘কাশ্মীরে জঙ্গি হানায় আমাদের জওয়ানদের মৃত্যু হয়েছে, আপনাদের আমন্ত্রণ জানালেও এই প্রেক্ষিতে আজ আর রাজনীতি নয়। সাংবাদিক বৈঠক বাতিল করছি। আসুন আমরা নিহত জওয়ানদের স্মৃতির উদ্দেশে দু’মিনিট নীরবতা পালন করি।’
গোটা সাংবাদিক বৈঠকটি দেখলে স্পষ্টই বোঝা যাবে, প্রিয়াঙ্কা জঙ্গি হানার খবর শুনে মোটেও হেসে ওঠেননি। তাহলে কী উদ্দেশে এমন প্রচার? ‘Alt news’ ও ‘scroll’, এই দুটি পোর্টালের প্রতিবেদনে আরও প্রকাশ, অঙ্কুর সিংহকে ট্যুইটারে ফলো করেন খোদ প্রধানমন্ত্রী মোদি। ভুয়ো খবর প্রচারের অভিযোগে আগেও এই ব্যক্তির ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছিল কর্তৃপক্ষ।

Comments
Loading...