জনগণনার প্রথম পর্ব শুরু ১ এপ্রিল: নাগরিক ভুল তথ্য দিলে হবে জরিমানা, ফর্ম ভর্তি করা যাবে অনলাইনেও

এবছর ১ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে জনগণনার প্রথম পর্ব। চলবে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। জনগণনার কাজে নিযুক্ত কর্মীদের এই ১৮০ দিনের মধ্যে যে কোনও ৪৫ দিনের মধ্যে গণনার প্রথম পর্বের কাজ শেষ করতে হবে।
এই প্রেক্ষিতেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে জানানো হল আসন্ন জনগণনার মহাযজ্ঞ সম্পর্কে বেশ কয়েকটি তথ্য।
কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের মুখপাত্র জানাচ্ছেন, ভারতের জনগণনা বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রশাসনিক এবং সংখ্যাতাত্ত্বিক প্রক্রিয়া, যাতে যুক্ত থাকবেন ৩০ লক্ষেরও বেশি কর্মী। এজন্য মোট খরচ হবে ৮,৭০০ কোটি টাকা।

এই প্রথম জনগণনায় ব্যবহার করা হবে জোড়া প্রক্রিয়া। কাগজে-কলমে তথ্য সংগ্রহ করার পাশাপাশি এবারের জনগণনায় তথ্য সংগ্রহে মোবাইল অ্যাপেরও ব্যবহার হচ্ছে। আদমশুমারি চলাকালীন অনলাইনে যে কেউ তথ্য জমা দিতে পারবেন।

১৯৪৮ সালের জনগণনা আইনে আপনার দেওয়া তথ্য গোপন থাকবে। নাগরিকের তথ্য ফাঁস করলে জরিমানা হবে গণনা কর্মীর। রয়েছে শাস্তির সংস্থানও। একইভাবে নাগরিক ভুল তথ্য দিলে তারও জরিমানা হবে।

প্রথম পর্বের জনগণনার কাজের সঙ্গে সমান্তরালভাবে চলবে এনপিআরের কাজ। জনগণনার দ্বিতীয় পর্ব চলবে ২০২১ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।
যে সব কর্মীরা মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে দুই পর্বের জনগণনা এবং এনপিআরের কাজ করবেন তারা পাবেন ২৫ হাজার টাকা ভাতা। আর যাঁরা কাগজে-কলমে সেই একই কাজ করবেন তাদের ভাতা ১৮,৫০০ টাকা। এবারও জনগণনার কাজ স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের দিয়েই করানো হবে।
Comments
Loading...