ক্লাস ফাইভ পাস সাংসদদের বার্ষিক গড় আয় ১.৪১ কোটি টাকা, ডক্টরেট সাংসদদের ১৫ লাখ! আয়ের নিরিখে প্রথম ২০ র তালিকায় বাংলার ২ সাংসদ

১১ ই এপ্রিল শুরু হচ্ছে লোকসভা নির্বাচন। কিন্তু যে পাঁচ বছরের (২০১৪ থেকে ২০১৯) লোকসভার মেয়াদ শেষ হল, তার সাংসদদের আয়ের এক বিস্তারিত রিপোর্ট এবার প্রকাশ করল অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেটিক রিফর্মস (এডিআর)। মাত্র কয়েকদিন আগেই তাদের প্রকাশিত এক রিপোর্টে জানা গিয়েছিল, দেশের ৮৩ শতাংশ সাংসদই কোটিপতি। এবার তাদের প্রকাশিত অন্য এক রিপোর্টে উঠে এল একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য। মূলত পেশা এবং শিক্ষাগত যোগ্যতার নিরিখে সাংসদদের বার্ষিক আয় কেমন, সেই তথ্যের ভিত্তিতে এই রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে।
ভারতে লোকসভার মোট ৫৪৩ জন সাংসদের মধ্যে ৪৭৯ জনের আয়ের নিরিখে এই রিপোর্ট। বাকিরা তাঁদের আয়ের কোনও তথ্য জমা দেননি। এডিআর-এর রিপোর্ট অনুযায়ী এই ৪৭৯ জন সাংসদের গড় বার্ষিক আয় ৩০.২৯ লক্ষ টাকা। অন্ধ্র প্রদেশের ১৯ জন সাংসদের গড় বার্ষিক আয় ১০৫.৯ লক্ষ টাকা, যা দেশে সর্বোচ্চ। তার ঠিক পরেই রয়েছে ওড়িশা। সেখানকার ১৫ জন সাংসদের গড় বার্ষিক আয় ৬৮.৮ লক্ষ টাকা। অন্যদিকে, আয়ের নিরিখে এই তালিকায় সবার নীচে রয়েছে গোয়া। সেখানকার ২ সাংসদের গড় বার্ষিক আয় ৫.২ লক্ষ টাকা। কিন্তু এর মধ্যে কোনও চমক নেই। রিপোর্টের যে অংশ অনেকের চোখ কপালে তুলেছে, তা হল, পঞ্চম শ্রেণি পাস করা সাংসদের গড় বাৎসরিক আয় শিক্ষাগত যোগ্যতার সূচকে বাকি সবার তুলনায় অনেক অনেক বেশি!
এডিআরের সমীক্ষায় উঠে এসেছে এমনই একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য। সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে, ভারতের লোকসভায় এমন ৬ জন সাংসদ রয়েছেন, যাঁদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, পঞ্চম শ্রেণি পাস। তাঁদের গড় বার্ষিক আয় ১.৪১ কোটি টাকা। অন্যদিকে, লোকসভায় মোট ৩০ জন ডক্টরেট সাংসদ রয়েছেন। তাঁদের গড় বার্ষিক আয় ১৫.০৫ লক্ষ টাকা। এবার লোকসভায় একজন নিরক্ষর সাংসদও ছিলেন। তাঁর গড় বার্ষিক আয় ৭৫ লক্ষ টাকা। এছাড়াও অষ্টম শ্রেণি পাস মোট ৮ জন সাংসদ ছিলেন। তাঁদের গড় বার্ষিক আয় ২১.৯৭ লক্ষ টাকা। দশম শ্রেণি পাস ৪২ জন সাংসদের বার্ষিক গড় আয় ২৬.৬৭ লক্ষ টাকা। গ্রাজুয়েট এবং পোস্ট-গ্রাজুয়েট সাংসদদেরও গড় আয় পঞ্চম শ্রেণি পাস সাংসদদের তুলনায় অনেক কম।
এডিআর-এর এই রিপোর্ট অনুযায়ী, গড় বার্ষিক আয়ের তালিকায় সবচেয়ে উপরের দিকে রয়েছেন পেশায় অভিনেতা, গায়ক কিংবা চলচ্চিত্র নির্মাতা সাংসদরা। মোট সাংসদ সংখ্যার ৩ শতাংশ, ১৬ জন সাংসদ পেশাগতভাবে গান কিংবা সিনেমার সঙ্গে যুক্ত। তাঁদের গড় বার্ষিক আয় ১০৬.৮১ লক্ষ টাকা।
আয়ের নিরিখে দেশের প্রথম ২০ জন সাংসদের মধ্যে বাংলার দু’জন রয়েছেন। তৃণমূলের দেব এবং কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। এই তালিকায় এক নম্বরে রয়েছেন অন্ধ্র প্রদেশের টিডিপি সাংসদ জয়দেব গল্লা। তাঁর মোট বার্ষিক আয় ছিল ১৬ কোটি ৮৫ লক্ষ টাকারও বেশি। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন বিজেপি সাংসদ অভিনেতা পরেশ রাওয়াল। তাঁর গড় বার্ষিক আয় ৮ কোটি টাকারও বেশি। এই তালিকায় সাত নম্বরে রয়েছে এ রাজ্যের ঘাটালের সাংসদ অভিনেতা দেব। তাঁর গড় বার্ষিক আয়ের পরিমাণ ৩ কোটি ২৩ লক্ষ টাকার বেশি। তালিকায় ১৩ নম্বরে নাম রয়েছে শ্রীরামপুরের তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তাঁর গড় বার্ষিক আয় ১ কোটি ৯৫ লক্ষ ৮২ হাজার ৬৪০ টাকা।
সাংসদদের আয়ের নিরিখে রাজ্যভিত্তিক তালিকায় সবার উপরে চণ্ডীগড়। সেই রাজ্য থেকে একজন মাত্র সাংসদ রয়েছেন। তাঁর গড় বার্ষিক আয় ১ কোটি ৭২ লক্ষ ২০ হাজার ৮১০ টাকা। তারপরেই রয়েছে অন্ধ্র প্রদেশ। এই তালিকায় ১৪ তম স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। এরাজ্যের সাংসদদের গড় বার্ষিক আয় ২৫ লক্ষ ৯৩ হাজার ৭১৩ টাকা।

Comments
Loading...