‘আমি কোনও দিন চেয়ার-হারা হইনি’, নিজের চেয়ার নিয়ে নবান্ন ছাড়লেন বিদায়ী মুখ্য সচিব রাজীবা সিনহা

রাজ্যের মুখ্য সচিব পদ থেকে রাজীবা সিনহা অবসর নিলেন ৩০ সেপ্টেম্বর। কিন্তু ‘নিজের চেয়ার’ সঙ্গেই থাকল ১৯৮৬ ব্যাচের এই আইএএস অফিসারের। বুধবার প্রোটোকল মেনে তিনি দায়িত্ব হস্তান্তর করে দিয়েছেন পরবর্তী মুখ্য সচিব আলাপন ব্যানার্জিকে। কিন্তু নিজের চেয়ার ছাড়েননি রাজীবা সিনহা। সেটি আগেই তিনি পাঠিয়ে দিলেন ক্যামাক স্ট্রিটে শিল্পোন্নয়ন নিগমের অফিসে। বৃহস্পতিবার থেকে আগামী তিন বছরের জন্য শিল্পোন্নয়ন নিগমের চেয়ারম্যান হয়ে তাঁর বসার কথা।
কিন্তু এই চেয়ার না ছাড়ার ব্যাপারটা কী? মজার ছলে রাজীবা সিনহার মন্তব্য, ‘আমি কোনওদিন চেয়ার-হারা হইনি। হবও না। আমার চেয়ার আমার সঙ্গেই যাবে।’ আসলে সেই ক্ষুদ্র শিল্প দফতরের দায়িত্ব সামলানোর সময় থেকেই একটি চেয়ার রাজীবা সিনহার সঙ্গী। কর্মসূত্রে দায়িত্ব বদলেছে, সেই সঙ্গে স্থান বদলাতে হয়েছে এই চেয়ারটিকেও। তাঁর সঙ্গেই এই চেয়ার ঘুরেছে স্বাস্থ্য দফতর থেকে মুখ্য সচিবের অফিসে এবং এবার সেটা চলে গেল শিল্পোন্নয়ন নিগমের অফিসে।
এই চেয়ার নিয়ে কি কোনও সংস্কার আছে আইএএস অফিসার রাজীবা সিনহার? ব্যাপারখানা তিনি নিজেই খোলসা করছেন। সাংবাদিকদের জানান, একেবারে ব্যক্তিগত কারণে ২০১৩ সালে নিজের বসার জন্য একটি চেয়ার কিনেছিলেন। অবশ্যই নিজের বেতনের অর্থ থেকেই। সেই থেকে দীর্ঘ সাত বছর এই চেয়ারই তাঁর সঙ্গী। সরকারি চেয়ার থাকলেও নিজের কেনা এই চেয়ারেই এতদিন বসেছেন রাজীবা সিনহা। শিল্পোন্নয়ন নিগমের চেয়ারম্যান হয়েও সেই দীর্ঘদিনের অভ্যাসের বদল হল না।
টানা ৩৫ বছরের কর্মজীবন রাজীবা সিনহার। ১৯৮৬ ব্যাচের আইএএস অফিসারের কর্মজীবন শুরু হয়েছিল কোচবিহারের জেলা শাসক হিসেবে। তারপর কলকাতা পরিবেশ উন্নয়ন প্রকল্পের প্রধান, ইউনিসেফ এর প্রকল্পে কাজ, পরবর্তীতে রাজ্যের শিল্প, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প এবং তারও পরে স্বাস্থ্য দফতরের সচিব হিসেবেও কাজ করেছেন। অবসরের আগে বাংলার মুখ্য সচিব হন।
এই দীর্ঘ কর্মজীবনে সেরা কোনও কাজের জন্য গর্ব অনুভব করেন? সাংবাদিকদের প্রশ্নে তাঁর জবাব, আবেগ দিয়ে কাজ করি, কোনও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করি না। রোজই আমার কাজের দিন। আমি কারও জন্য কাজ করিনি। নিজের আনন্দে কাজ করেছি। সব কাজই আমার কাছে সমান দামী।
কাজের প্রতি তাঁর এই ভালবাসার জন্য বুধবার উত্তরকন্যায় রাজীব সিনহার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কথায়, আমি নিজে মনে করি, অবসর বলে কিছু হয় না। আমরা কাজের মানুষকে অবসর নিতেও দিই না। আর মুখ্য সচিবের পদ থেকে অবসর নিয়ে ‘কাজের মানুষ’ রাজীবা সিনহা ঢুকে পড়লেন নতুন ভূমিকায়। তবে চেয়ারটা সেই একই থাকছে।

Comments
Loading...