ভোট শেষের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই ভবানী ভবনে তলব ভারতী ঘোষকে, করা হল বয়ান রেকর্ড

ভোট মিটতেই জেরার মুখে ভারতী ঘোষ। মঙ্গলবার ভবানী ভবনে তাঁকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করে সিআইডি, রেকর্ড করা হয় বয়ান।
ঠিক কোন মামলায় ভারতী ঘোষকে জেরা করা হচ্ছে, নির্দিষ্টভাবে তা জানা না গেলেও, সূত্রের খবর, দাসপুর সোনাকাণ্ড এবং টাকা আত্মসাতের অভিযোগের প্রেক্ষিতেই প্রাক্তন আইপিএস ভারতী ঘোষকে জেরা করে সিআইডি।
এক ফল ব্যবসায়ী অভিযোগ করেছিলেন তাঁর কাছ থেকে ৪৫ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেছিলেন ওই আইপিএস অফিসার। ২০১৬ সালে নিয়ে হাইকোর্টে মামলাও করেছিলেন ওই ফল ব্যবসায়ী। অভিযোগ, ২০১৬-র সেপ্টেম্বরে ঝাড়গ্রামে তাঁর কয়েকজন পরিচিতের কাছে টাকা পাঠিয়েছিলেন ওই ফল ব্যবসায়ী। কিন্তু খড়গপুরের কাছে তাঁদের গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়লে গাড়ি ও টাকা বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। সেইসময় ঝাড়গ্রামের পুলিশ সুপারের দায়িত্বে থাকা ভারতী ঘোষের দ্বারস্থ হলে তাঁকে জানানো হয়, টাকার উৎস জানতেই বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে ওই অর্থ। পাশাপাশি ফল ব্যবসায়ীকে অন্য মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ারও হুমকি দেন ভারতী, বলে আদালতে দাবি ফল ব্যবসায়ীর। এছাড়াও, দাসপুরের এক ব্যবসায়ীও তৎকালীন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষের বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ করেছিলেন। এই মামলাগুলিতে ভারতীকে আপাতত গ্রেফতার করা যাবে না বলে নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। তবে মঙ্গলবার ভারতী ঘোষকে সংশ্লিষ্ট মামলাগুলিতেই সিআইডি জিজ্ঞাসাবাদ করে বলে সূত্রের খবর।

Comments
Loading...