নাথুরাম গডসের নামে ইউটিউব চ্যানেল! কেন তিনি হত্যা করেছিলেন গান্ধীজিকে? ব্যাখ্যা দেবে হিন্দু মহাসভা

মহাত্মা গান্ধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসের নামে এবার খোলা হবে ইউটিউব চ্যানেল। তাঁর ‘ভালো কাজ’ তুলে ধরা হবে যুব সমাজের সামনে। এমনকী কেন মহাত্মা গান্ধীকে হত্যা করেছিলেন গডসে, সেই কারণগুলোও দেখানো হবে। সৌজন্যে অখিল ভারতীয় হিন্দু মহাসভা। সম্প্রতি এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন অখিল ভারতীয় হিন্দু মহাসভার মুখপাত্র অভিষেক আগরওয়াল।

তাঁর কথায়, বর্তমান প্রজন্ম সোশ্যাল মিডিয়ায় খুব সক্রিয়। নাথুরাম গডসের চ্যানেলের মাধ্যমে আমরা তাঁদের সঙ্গে জনসংযোগ আরও বৃদ্ধির চেষ্টা করছি। কেন তিনি গান্ধীকে হত্যা করেছিলেন, সে কথা ওখানে বলা হবে। এছাড়া গডসে কী কী ভাল কাজ করেছেন, সেগুলোরও প্রচার করা হবে। জাতির পিতাকে হত্যা করা নাথুরাম গডসের মহিমা বর্ণনার এমন ভার্চুয়াল প্রকল্পের উদ্দেশ্য নিয়েই অবশ্য প্রশ্ন তুলছেন বিশিষ্টরা।

১৯৪৮ সালের ৩০ জানুয়ারি জাতির জনককে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করে হত্যা করেন নাথুরাম বিনায়ক গডসে।

কয়েকদিন আগেই গেল গান্ধীজির ১৫১ তম জন্মদিন। এই দিনেই গান্ধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসের নাম ট্যুইটারের টপ ট্রেন্ডে ঘুরছিল। ‘নাথুরাম গডসে জিন্দাবাদ’ ওই দিন সকাল থেকেই ট্যুইটারে টপ ট্রেন্ড লিস্টে দেখা যায়। যথেষ্ট বিতর্কও হয়েছিল।

তবে এর আগেও একাধিকবার বিজেপি নেতা–মন্ত্রীদের প্রকাশ্যে গডসে বন্দনায় দেখা গিয়েছিল। বিজেপি সাংসদ প্রজ্ঞা সিংহ ঠাকুর গডসকে ‘‌দেশভক্ত’ আখ্যা দেন।

অখিল ভারতীয় হিন্দু মহাসভা সহ বেশ কিছু দক্ষিণপন্থী সংগঠন বহু বছর ধরে গান্ধী হত্যাকারী গডসের প্রশংসা করে আসছে। তবে তাঁর নামে ইউটিউব চ্যানেল খোলা এবং সেখাবে কেন তিনি গান্ধীজিকে হত্যা করেছিলেন তার ব্যাখ্যা দেওয়ার উদ্যোগ এই প্রথম।

কংগ্রেস নেত্রী আরাধনা মিশ্র বলেন, ‘গান্ধীজির চিন্তাধারা নষ্ট করে গডসের মতো একজন ব্যক্তির ভাবমূর্তিকে উজ্জ্বল করা হিন্দুত্ববাদী দলটির মূল উদ্দেশ্য। কিন্তু প্রত্যেক ভারতীয়র ডিএনএতে গান্ধীর প্রতি শ্রদ্ধা রয়েছে। গডসের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার এই প্রয়াস কখনওই সফল হবে না।

 

Comments
Loading...