কোনও রিপোর্ট দিচ্ছে না রাজ্য! ডিজি ও মুখ্যসচিবকে জরুরি তলব রাজ্যপাল ধনখড়ের

বাংলায় কথায় কী হচ্ছে তা নিয়ে তাঁকে কিছুই জানানো হচ্ছে না। তাই রাজ্যপাল হিসেবে নিজের কর্তব্য পালন করতে পাচ্ছেন না। সোশ্যাল মিডিয়ায় দীর্ঘ বিবৃতি দিয়ে আগামী ১২ ডিসেম্বর রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র ও মুখ্যসচিব আলাপন ব্যানার্জিকে তলব করলেন জগদীপ ধনখড়। 

মঙ্গলবার ট্যুইটারে ধনখড় লেখেন, তিনি যে সব রিপোর্ট এতদিন চেয়ে চেয়েও পাননি, তার সবটা নিয়ে ডিজি ও মুখ্যসচিবকে ১২ ডিসেম্বর রাজভবনে হাজির হতে হবে। ট্যুইটারে দীর্ঘ বিবৃতিতে ধনখড় এও লিখেছেন, কীভাবে বারবার তাঁর তলব এড়িয়ে গিয়েছেন রাজ্য প্রশাসনের শীর্ষ কর্তারা। তাঁর অভিযোগ, রাজ্যে কী ঘটছে এ নিয়ে প্রশ্ন করলে তাঁকে বারবার উপেক্ষা করেছেন ডিজি ও মুখ্যসচিব। একের পর এক তারিখ দেওয়া হলেও বিভিন্ন কারণে তা এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে। সংবিধানের ১৫৯ ধারা উল্লেখ করে ধনখড় লিখেছেন, রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান হিসেবে বিভিন্ন ঘটনার গতি-প্রকৃতি না জানায় রাজ্যবাসীর জন্য তিনি কাজ করতে পারছেন না। তাই আবারও চিঠি পাঠিয়ে মুখ্যসচিব আলাপন ব্যানার্জি এবং রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্রকে রিপোর্ট-সহ রাজভবনে ডেকে পাঠিয়েছেন তিনি। তিনি লেখেন, এজন্য তিনদিন সময় দেওয়া হচ্ছে তাঁদের।

কিন্তু কেন আবার জরুরি তলব রাজ্যের শীর্ষ প্রশাসনিক কর্তাদের? মনে করা হচ্ছে, উত্তরকন্যা অভিযানে বিজেপি কর্মীর মৃত্যুতে যে রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হয়েছে, তার প্রেক্ষিতেই রাজভবনের এই পদক্ষেপ। 

সোমবার বিজেপি প্রতিনিধিরা রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন। তাঁর কাছে রাজ্যের আইন-শৃঙখলা পরিস্থিতি নিয়ে অভিযোগ করেন। এছাড়া একাধিক ঘটনায় বারবার পুলিশের কাছে রিপোর্ট চেয়েছেন রাজ্যপাল। সে কথা নিজেই ট্যুইটারে তুলে ধরেন। এখন রাজ্যপালের তলব পেয়ে মুখ্যসচিব এবং ডিজি কী সাড়া দেন সেটাই দেখার।

Comments
Loading...