প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ মামলায় অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ খারিজ হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ মামলায় আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে মেধা তালিকা প্রকাশ করার নির্দেশ দিল হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। পাশাপাশি নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করা যেতে পারে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়। এই নির্দেশের পরেই প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে আইনী জট মুক্ত রাজ্য সরকার।

এরআগে গত ২২ ফেব্রুয়ারি প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ জারি করে হাইকোর্টের বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের সিঙ্গল বেঞ্চ। অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে ডিভিশন বেঞ্চে যায় প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। বৃহস্পতিবার ডিভিশন বেঞ্চ অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ খারিজ করে দেয়।

এর আগে প্রাথমিকে ১৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। মুখ্যমন্ত্রীর সেই নির্দেশের পরই শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করে প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ। এরপরেই হাইকোর্টে মামলা দায়ের হয়। শিক্ষক নিয়োগের কথা বলা হলেও মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয়নি বলে অভিযোগ তোলেন কয়েকজন চাকরিপ্রার্থী। তাঁদের অভিযোগ ছিল ফোন এবং এসএমএসের মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগ করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন- তৃণমূলে যোগদান করলেন সঙ্গীত শিল্পী অদিতি মুন্সী]

সেই মামলার শুনানিতে প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ জারি করে বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ। সিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চে যায় প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। সেই মামলাতেই হাইকোর্ট ২ সপ্তাহের মধ্যে মেধা তালিকা প্রকাশের নির্দেশ দেয়।

উল্লেখ্য, গত ২৩ ডিসেম্বর প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করে রাজ্য সরকার। টেট উত্তীর্ণরা এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্তরা একমাত্র আবেদন করতে পারবেন বলে জানানো হয়েছিল। প্রায় ২৬ হাজার ৫০০ জন আবেদন করেছিল।

Comments
Loading...