নজরবন্দিই থাকবেন অনুব্রত মণ্ডল, তৃণমূলের আবেদন খারিজ করে জানিয়ে দিল হাইকোর্ট

হাইকোর্টে ধাক্কা খেল তৃণমূল। বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে নজরবন্দি করার কমিশনের সিদ্ধান্তে স্থগিতাদেশের আবেদন জানিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল তৃণমূল। কিন্তু হাইকোর্ট কমিশনের সিদ্ধান্তেই আস্থা রেখেছে। ফলে অনুব্রত মণ্ডলকে নজরবন্দি রাখার সিদ্ধান্তই বহাল থাকল।
বীরভূমে অনুব্রত মণ্ডলকে নজরবন্দি করে রাখা ছাড়া সুষ্ঠু ভোট গ্রহণ অসম্ভব, নির্বাচন কমিশনে এমনই অভিযোগ জানিয়েছিল বিরোধীরা। কমিশন সেই অভিযোগ খতিয়ে দেখে তৃণমূলের বীরভূমের জেলা সভাপতিকে নজরবন্দি করে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়। এই প্রেক্ষিতে রবিবার সন্ধ্যা থেকেই অনুব্রতকে নজরবন্দি করে কেন্দ্রীয় বাহিনী। সোমবার দলীয় কর্মীর মোটর বাইকে চেপে ভোট দিয়ে বেরনোর পর, বীরভূমের দাপুটে তৃণমূল সভাপতি অবশ্য কমিশনের নজরবন্দি রাখার সিদ্ধান্ত নিয়ে কটাক্ষ করেন। তবে অনুব্রত মণ্ডল ভোট দিতে যাওয়ার সময় কোনও ম্যাজিস্ট্রেট বা কেন্দ্রীয় বাহিনীর দেখা মেলেনি বলে স্থানীয় সূত্রের দাবি।

পাশাপাশি, কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বমূলক আচরন ও বিজেপি নেতারা নির্বাচনী বিধিভঙ্গ করছেন, এই অভিযোগে সোমবার নির্বাচন কমিশনের অফিসে হাজির হয় তৃণমূলের প্রতিনিধি দল।

Comments
Loading...