রাম ঘুরে বাম ভোট মমতায়? তৃণমূলের নতুন জেতা ৫৩ আসনের মধ্যে ৫২ টি সিপিএম-কংগ্রেসের

২০১৬ সালে জেতা বিজেপির ৩ টি আসনের মধ্যে একটি আসন এবার তৃণমূল ছিনিয়ে নিয়েছে

২০১৯ সালে দেখা গিয়েছিল, সিপিএমের ভোটাররা দল বেঁধে বিজেপিতে ভোট দিচ্ছেন। ফলস্বরূপ বামেদের ভোট শতাংশ তলানিতে পৌঁছেছিল। মুখে মুখে ঘুরছিল ‘বাম থেকে রাম’ শব্দবন্ধ। একুশের ভোটে কি সেই ভোট রাম ঘুরে মমতায় এসে ঠেকল?

২০১৬ সালে বাম-কংগ্রেস জোট বেঁধে নির্বাচনে লড়ে। কিন্তু তাতে মমতার জয়যাত্রা আটকায়নি। সেবার তৃণমূল ২০০ পার করে। বাম-কংগ্রেস মহাজোট আটকে যায় ৭৭ টি আসনে।

লোকসভা ভোটে সব হিসেব উল্টে পাল্টে বিজেপি একাই ১৮ টি আসন জিতে নেয়। ভোট শতাংশের নিরিখে বিজেপির আকাশছোঁয়া লাফে মিশে যায় বামে ভোটের একটা বিশাল অংশ। এবার আসুন দেখা যাক কী বলছে একুশের ফল।

একুশের বিধানসভা ভোটে তৃণমূল ৫৩ টি আসনে নতুন করে জয়লাভ করেছে। ষোলোর নির্বাচনে ওই ৫৩ টি আসনের মধ্যে ৫২ টি আসন ছিল মহাজোটের দখলে। অর্থাৎ গত বিধানসভায় মহাজোটের জেতা ৬৭% আসনে এবার উড়ছে ঘাসফুল পতাকা। এই ৫২ আসনের মধ্যে ২৯টিতে কংগ্রেসের দখল ছিল। ২০টি আসনে জয়লাভ করেছিল সিপিএম। বাকি আসনগুলিতে জয়ী হয়েছিলেন ফরোয়ার্ড ব্লক, আরএসপি প্রার্থীরা। এবার এই দলগুলো রাজ্যে একটিও আসন পায়নি। মালদহ, মুর্শিদাবাদের ফলাফল বলছে সেখানে বেশিরভাগ কেন্দ্রেই বাম-কংগ্রেস জোট প্রার্থীরা তৃতীয় স্থানে আছেন।

২০১৬ সালে জেতা বিজেপির ৩ টি আসনের মধ্যে একটি আসন এবার তৃণমূল ছিনিয়ে নিয়েছে।

এদিকে এবারের ভোটে জেতা ৭৭ টি আসনের মধ্যে ২৭ টি আসনে বিজেপি প্রার্থীরা জয়লাভ করেছেন যেখানে ২০১৬ সালে কংগ্রেস বা সিপিএম প্রার্থীরা জিতেছিলেন। এরমধ্যে কংগ্রেস জিতেছিল ১৫ আসন, সিপিএম ৬, আরএসপি ২, গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা ২, ফরওয়ার্ড ব্লক ১ এবং নির্দল ১ টি আসন জিতেছিল।

Comments
Loading...