জেলেই মৃত্যু চিট ফান্ড মামলাত অভিযুক্ত আইকোর কর্তা অনুকূল মাইতির

ভুবনেশ্বরে জেল হেফাজতে থাকাকালীনই মৃত্যু হল অর্থলগ্নি সংস্থা আইকোর-এর কর্ণধার অনুকূল মাইতির। ২০১৭ সালে বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থার মাধ্যমে বাজার থেকে কোটি কোটি টাকা তুলে আত্মসাৎ করার অভিযোগে সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হন অনুকূল। তার আগেও, ২০১৫ সালে সিআইডি তাঁকে গ্রেফতার করেছিল। পূর্ব মেদিনীপুরের এই চিট ফান্ড সংস্থা বাংলা, ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা এবং ত্রিপুরার কয়েক লক্ষ লগ্নিকারীর কাছ থেকে প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকা তুলেছিল বলে অভিযোগ করে সিবিআই। এর পর অনুকূল এবং তাঁর স্ত্রী কণিকাকে গ্রেফতার করে সিবিআই ওড়িশায় নিয়ে যায়। সেখানে ভুবনেশ্বরের ঝারপড়ার স্পেশ্যাল সেলে রাখা হয়েছিল তাঁদের। অনুকূল মাইতির স্ত্রী অবশ্য কিছুদিন আগে জামিন পেয়েছেন।

সূত্রের দাবি, কটক হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়েছিলেন অনুকূল মাইতি। কিন্তু, বন্ডের টাকা দিতে না পারায় তিনি ছাড়া পাননি। উচ্চ রক্তচাপ, কিডনি এবং ডায়াবেটিসের রোগী ছিলেন তিনি। এর আগেও বেশ কয়েকবার অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার শারীরিক সমস্যা দেখা দিলে তাঁকে জেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। রাতে সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়। ইতিমধ্যেই সিবিআই জেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। কী কারণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে, তার বিস্তারিত রিপোর্ট চাওয়া হয়েছে।

Comments
Loading...