মাদ্রাজ আইআইটি ক্যান্টিনে নিরামিষাশীদের জন্য আলাদা হাত ধোওয়ার জায়গার নোটিশ ঘিরে বিতর্ক

কে কী খাবে, কার কী পরা উচিত তা নিয়ে ফতোয়া জারি করে বেশ কয়েকবার বিতর্ক সৃষ্টি করেছে বিজেপি। যা নিয়ে তর্ক-বিতর্ক চলছেই। সেই বিতর্ক আবার একবার উস্কে দিল মাদ্রাজ আইআইটি ক্যাম্পাস। মাদ্রাজ আইআইটি ক্যান্টিনে আমিষাশী ও নিরামিষাশীদের জন্য মেসে আলাদা বসার জায়গা, এমনকী হাত ধোয়ার জন্য আলাদা বেসিন নির্ধারণ করতে নোটিশ দেওয়া হল। যার তীব্র প্রতিবাদ করে ছাত্র-ছাত্রীরা। শুক্রবার রাতে মেসের দেওয়ালে কেটারিং সংস্থার পক্ষ থেকে এমনই কিছু পোস্টার সাঁটা হয় দেওয়ালে। পরে ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতিবাদের জেরে অবশ্য সেগুলি সরিয়ে নেওয়া হয়।
ছাত্র-ছাত্রীরা দাবি করেন, দেশের প্রথম সারির এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কোন যুক্তিতে এমন নোটিশ দেওয়া হয়। ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে জাত-পাতের ভেদাভেদকে প্রশ্রয় দেয় এইরকম নির্দেশ, বলে সরব হন ছাত্র-ছাত্রীরা। যদিও মাদ্রাজ আইআইটি কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা এমন কোনও নোটিশ জারি করেনি। এই কাজ করেছে ভারপ্রাপ্ত কেটারিং সংস্থা। অবিলম্বে কেটারিং সংস্থাকে শো-কজ করা হবে বলে জানায় কর্তৃপক্ষ।
এর আগে, চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে বম্বে আইআইটিতে ঠিক একইরকম ঘটনা ঘটেছিল। মেস কো-অর্ডিনেটরের পক্ষ থেকে ই-মেল করে জানানো হয় নিরামিষ ও আমিষ থালা যেন না ‘গুলিয়ে ফেলে’ ছাত্র-ছাত্রীরা। ওই ই-মেলে জানানো হয়, শুধুমাত্র ‘ট্রে টাইপ’ প্লেট নিরামিষাশীদের জন্য এবং ‘মেন টাইপ’ প্লেট আমিষাশীদের বরাদ্দ। যা নিয়ে সৃষ্টি হয়েছিল বিতর্ক। যদিও প্রশ্নের মুখে পড়ে কর্তৃপক্ষ জানায়, নিরামিষাশী ছাত্র-ছাত্রীদের দাবির ভিত্তিতেই এমন পদক্ষেপ নিয়েছিল তারা।

Comments
Loading...