উর্জিত প্যাটেলের ইস্তফার জল্পনার মধ্যেই আইএমএফ জানাল, আরবিআই-এর কাজে কেন্দ্রের হস্তক্ষেপ উচিত নয়

কোনও দেশেরই উচিত না, সে দেশের সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের কাজে হস্তক্ষেপ করা। আইএমএফ বরাবর মনে করে, কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কগুলির স্বাধীনতা কাম্য ও তাদের স্বাধীনভাবে কাজ করতে দেওয়া উচিত। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক এবং কেন্দ্রীয় সরকারের মধ্যে সম্প্রতি বিভিন্ন ইস্যুতে যে মতানৈক্য তৈরি হয়েছে এবং কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আরবিআই-এর কাজে হস্তক্ষেপের যে অভিযোগ উঠেছে, সে প্রসঙ্গে এই মতই প্রকাশ করা হয়েছে আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডার বা আইএমএফ-এর তরফে।
ভারতীয় সময়ে শুক্রবার ওয়াশিংটনে আইএমএফ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে এই কথা জানিয়ে সংস্থার ডিরেক্টর অফ কমিউনিকেশন গেরি রাইস আরও বলেন, ভারতের পরিস্থিতির উপর তাঁরা লাগাতার নজর রাখছেন। রাইস বলেন, বিভিন্ন দেশ থেকে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের কাজে হস্তক্ষেপের অভিযোগ সামনে আসছে, তা কাম্য নয়। কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কগুলিকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে দেওয়া উচিত। উল্লেখ্য, ভারতের আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গেও সে দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের মতানৈক্যের খবর মিলেছিল।
উল্লেখ্য, নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধেও সম্প্রতি রিজার্ভ ব্যাঙ্কের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের অভিযোগ উঠেছে। আরবিআই অ্যাক্টের ৭ নম্বর ধারা ব্যবহার করে কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের তরফে জনস্বার্থের কারণ দেখিয়ে সম্প্রতি ৩ টি চিঠি পাঠানো হয়েছে আরবিআইতে। এই ধারা ব্যবহার করে আরবিআইকে নির্দেশ দিতেই পারে কেন্দ্র, তবে তার আগে আরবিআই গভর্নরের সঙ্গে আলোচনা করে নেওয়া প্রয়োজন। স্বাধীন ভারতে এই প্রথম কোনও সরকার এই ধারা ব্যবহার করে আরবিআইকে কী করা উচিত তা নিয়ে পরামর্শ দিল। এর জেরে আরবিআই গভর্নর উর্জিত প্যাটেল পদত্যাগ করতে পারেন বলেও গত বুধবার জল্পনা শুরু হয়ে যায়।
তবে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি জানিয়েছেন, কোনও নির্দেশ নয় বরং কিছু পরামর্শ দেওয়া হয়েছে আরবিআইকে।
এই বিতর্ক আরও গুরুতর আকার নেয় গত শুক্রবার এক অনুষ্ঠানে আরবিআই ডেপুটি গভর্নর ভিরল আচারিয়ার এক মন্তব্যে। তিনি সেদিন বলেছিলেন, আরবিআইকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে দেওয়া উচিত, এর কাজে হস্তক্ষেপ করলে বা স্বাধীনতা খর্ব হলে দেশে অর্থনৈতিক অরাজকতা তৈরি হতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর দফতর আরবিআই-এর তরফে এই মন্তব্য ভালোভাবে নেয়নি। তারপরই উর্জিত প্যাটেল ইস্তফা দিতে পারেন, এই জল্পনা ছড়িয়ে পড়ায় পরিস্থিতি নয়া মোড় নেয়।

Comments
Loading...