রাজ্যে কনটেইনমেন্ট জোন বেড়ে ৪৪৪, সরাসরি করোনায় মৃত্যু বেড়ে ৩৩, মোট মৃত ১০৫, জানালেন মুখ্যসচিব

সোমবার মুখ্যসচিব জানিয়েছিলেন, কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা, হাওড়া ও পূর্ব মেদিনীপুর মিলিয়ে মোট কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা ৩৪৮। বৃহস্পতিবার রাজীবা সিনহা জানালেন রাজ্যের কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪৪৪।

কলকাতায় সোমবার ছিল ২২৭ টি কনটেইনমেন্ট জোন, তিনদিনের মধ্যে তা বেড়ে হয়েছে ২৬৪। হাওড়ায় কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা ৫৬ থেকে বেড়ে হয়েছে ৭২। উত্তর ২৪ পরগনায় সোমবার ছিল ৫৭ টি কনটেইনমেন্ট জোন, বৃহস্পতিবার তা বেড়ে হয়েছে ৭০।

উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি হয়েছে রাজ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যাতেও। মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, কোভিড অডিট কমিটি জানিয়েছে, মোট ১০৫ টি মৃত্যু খতিয়ে দেখে ৩৩ জনকে পাওয়া গিয়েছে যাঁদের মৃত্যু হয়েছে সরাসরি করোনাভাইরাসে। বাকি ৭২ টি মৃত্যু কো মর্বিড ইন নেচার বা অন্য কোনও সমস্যা জনিত কারণে মৃত্যু, যাঁরা কোভিড পজিটিভ ছিলেন।

নবান্ন থেকে জানানো হয়েছে কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা থেকে ৮০% রোগীর খোঁজ মিলছে। এই তালিকায় যু্ক্ত হয়েছে হুগলির নামও। রাজীবা সিনহা জানিয়েছেন, হুগলি থেকেও আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫৭২। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ জন কোভিড পজিটিভ পাওয়া গিয়েছে। তারা প্রত্যেকেই কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা কিংবা হুগলির বাসিন্দা। এর বাইরে রাজ্যের ৮ টি জেলা সম্পূর্ণভাবে করোনা মুক্ত।

রাজ্যে বেড়েছে নমুনা পরীক্ষার গতিও। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যের ১৩ টি ল্যাবে ১,৯০৫ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। রাজ্যে মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৬,৫২৫। পাশাপাশি মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, অডিট কমিটির তরফে পাঠানো রিপোর্টে বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সেই পরামর্শ স্বাস্থ্য দফতর সমস্ত হাসপাতাল ও নার্সিংহোমে পাঠিয়ে দেবে।

Comments
Loading...