পুলওয়ামার ঘটনা নিয়ে ইমরানের ট্যুইটের তীব্র প্রতিক্রিয়া দিল ভারত

কাশ্মীরে পুলওয়ামায় সেনা গুলিতে ৭ সাধারণ নাগরিকের মৃত্যুর ঘটনায় পাক প্রধানমন্ত্রীর ট্যুইটের জবাবে তীব্র প্রতিক্রিয়া দিল ভারত। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ৭ নাগরিকের মৃত্যুতে দুঃখপ্রকাশ করে ট্যুইট করেছিলেন, কাশ্মীরিদের ওপরই ছেড়ে দেওয়া উচিত, তাঁরা কীভাবে থাকতে চান। ভারতে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে, আর এনিয়ে রাষ্ট্র সংঘের দৃষ্টি আকর্ষণ করবেন বলে জানান ইমরান।
তাঁর ট্যুইটের পরিপ্রেক্ষিতে, ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রাভিশ কুমার জানালেন, পাক নেতাদের উচিত নিজেদের চরকায় তেল দেওয়া। পাকিস্তান আগে নিজেদের দেশে সন্ত্রাসবাদ দমন করার চেষ্টা করুক। তারপর অন্য দেশ নিয়ে মাথা ঘামাবেন বলে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেন ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র।
কুমার এও বলেন, পাকিস্তানের মাটিতে যে সন্ত্রাসবাদের ঘাঁটি আছে, তাকে আগে নিয়ন্ত্রণ করা হোক। নিজেদের দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে পাকিস্তান মাথা না ঘামিয়ে অন্য দেশের বিষয় নিয়ে মিছিমিছি মাথা ঘামাচ্ছে বলে কটাক্ষ করেন তিনি।
এর আগে পাক প্রধানমন্ত্রী ভারতের সঙ্গে আলোচনায় আগ্রহ প্রকাশ করলেও, ভারতের তরফ থেকে সে নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করা হয়নি। কেন্দ্র সরকার সাফ জানায়, যতদিন না পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদী সংগঠনগুলিকে নিয়ন্ত্রণ করবে, ততদিন কোনও আলোচনা সম্ভব নয়।
প্রসঙ্গত, গত ১৫ ই ডিসেম্বর কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলায় সেনা ও জঙ্গিদের গুলির লড়াইয়ে মারা যান ৭ জন সাধারণ নাগরিক। তীব্র প্রতিক্রিয়া হয় উপত্যকার সাধারণ মানুষ। বিভিন্ন সংগঠন স্থানীয়দের নিয়ে সেনা ছাউনি ঘেরাওয়ের ডাক দেয়। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয় উপত্যকায়। ভারতীয় সেনার তরফে বারবার উপত্যকার মানুষকে শান্তি বজায় রাখার আবেদন জানানো হয়। এখনও পর্যন্ত থমথমে হয়ে রয়েছে উপত্যকার পরিবেশ।
১৬ই ডিসেম্বর এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ট্যুইট করেছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

Comments
Loading...