বিস্মৃতির অতলে তলিয়ে গিয়েছিলাম, ভাটপাড়ায় প্রার্থী হওয়া ভারতরত্ন পাওয়ার মতো সম্মান: মদন মিত্র

ভাটপাড়ায় প্রার্থী হওয়া ভারতরত্ন পাওয়ার মতো সম্মান। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ, তিনি আমাকে এই সর্বোচ্চ সম্মানের যোগ্য বলে মনে করেছেন। দীর্ঘদিন পর নির্বাচনী রাজনীতিতে ফিরে এভাবেই দল নেত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন মদন মিত্র।
বৃহস্পতিবারই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন, ভাটপাড়া বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে লড়বেন সাম্প্রতিক সময়ে ফেসবুকে তুমুল জনপ্রিয় মদন মিত্র। তারপর এদিনই বিকেল পৌনে চারটে নাগাদ ফেসবুকে লাইভে এসে মদন মিত্র বললেন, কামারহাটি আমার কৈশোরের বৃন্দাবন, আর ভাটপাড়া বার্ধক্যের বারাণসী। পাশাপাশি জানিয়ে দিলেন, আপাতত অ্যালাইভ থাকব ভাটপাড়ায় তাই লাইভে আসব ২৩ শে মে। সেদিনই লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণা।
উপনির্বাচনের প্রার্থী ঘোষণার পরেই মদন মিত্র তাঁর ফেসবুক পেজে জানিয়ে দেন, তিনি লাইভে আসছেন। সেই মতো বিকেল পৌনে চারটে নাগাদ হলুদ পাঞ্জাবি এবং সিগনেচার চশমা চোখে লাইভে আসেন রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রী। আর এসেই সটান জানিয়ে দেন, বিস্মৃতির অতলে তলিয়ে যাওয়া রাজনৈতিক কর্মীকে যেভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফের মর্যাদার সঙ্গে প্রার্থী করেছেন, সেই সম্মানের মর্যাদা যেন নেত্রীকে ফিরিয়ে দিতে পারেন। তাঁর কথায়, ভাটপাড়ায় মদন মিত্র নয়, ভোটে লড়বেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই। পাশাপাশি কামারহাটির বাসিন্দারা কোনও সমস্যায় পড়লে আগের মতোই মদন মিত্রকে ফোন করতে পারবেন বলে জানিয়ে দিলেন। সভায় ব্যস্ত থাকলে ফোন ধরতে পারবেন না, তাই মেসেজ করে রাখার কথাও জানিয়ে দিতে ভুললেন না মদন।
২০০৬ সালে বিধানসভা ভোটে তৃণমূলের ভরাডুবির পর বিষ্ণুপুর উপনির্বাচনে জয়লাভ করেন মদন মিত্র। সেই শুরু, তারপর থেকে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি তৃণমূলকে। সেই অর্থে, মদন মিত্রের হাত ধরেই রাজ্যে শুরু হয়েছিল তৃণমূলের জয়যাত্রা। যা ক্রমেই সুনামি হয়ে ২০১১ সালে আছড়ে পড়ে মহাকরণে। দীর্ঘ বাম শাসনের অবসানে রাজ্যে ক্ষমতায় আসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। ক্রীড়া দফতরের দায়িত্ব যায় দাপুটে মদনের হাতে। তারপর গঙ্গা দিয়ে বহু জল বয়ে গিয়েছে। সারদা দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগে জেলে গিয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রী মদন মিত্র। জেলে বসেই কামারহাটি থেকে বিধানসভা ভোটে হেরেছেন। দীর্ঘদিন পর জামিন পেয়েছেন। তারপর তৃণমূলে থাকলেও, ভোটের ময়দানে দেখা যাচ্ছিল না মদন মিত্রকে। যদিও কামারহাটির সঙ্গে যোগ ছিল নিবিড়। এবার সেই অপেক্ষার অবসান। অর্জুন সিংহের দলত্যাগে, ভাটপাড়া কেন্দ্র থেকে উপনির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী হলেন মদন মিত্র।
বৃহস্পতিবারই ভোট মরশুমে শেষবার লাইভে এলেন বলে জানালেন মদন মিত্র। সঙ্গে সঙ্গে অনুগামীদের মধ্যে শোকের আবহ। সম্ভবত তা বুঝতে পেরেই, মদন বললেন, রাহা জিন্দেগি, তো ফির মিলেঙ্গে। আবার ফেটে পড়ল জনতা। কানফাটা হাততালির ভিতর ভাটপাড়ার উদ্দেশে রওনা দিলেন হলুদ পাঞ্জাবি আর সিগনেচার চশমার মদন মিত্র।

Comments
Loading...